পারিবারিক কলহ মেটানোর নামে নৈশপ্রহরীকে পেটানোর অভিযোগ ইউএনওর বিরুদ্ধে

|

বগুড়া ব্যুরো:

উপজেলা প্রকৌশল অফিসের নৈশপ্রহরীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সমর কুমার পালের বিরুদ্ধে। আলমগীর হোসেন শেখ নামের ওই নৈশপ্রহরীর অভিযোগ, পারিবারিক কলহের বিষয়ে নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েছিলেন তারই স্ত্রী। এর জেরে বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে অফিসে ডেকে দুজন আনসার সদস্যকে দিয়ে আলমগীরকে পিটিয়ে আহত করেছেন তিনি। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলছেন, আলমগীরকে ডেকে পারিবারিক সমস্যা মিটিয়ে ফেলতে বলেছেন তিনি। সেখানে মারপিটের কোনো ঘটনা ঘটেনি। সহানুভূতি পেতে মিথ্যা বলছেন আলমগীর।

আলমগীর হোসেনের মেয়ে লোপা খাতুন জানান, পারিবারিক কলহের বিষয়ে কথা বলতে তার বাবাকে ইউএনও অফিসে ডাকা হয়। একপর্যায়ে সেখানে আলমগীরকে বকাঝকা করেন ইউএনও এবং সেখানে থাকা দুজন আনসার সদস্যকে দিয়ে তাকে মারধর করান বলে অভিযোগ করেন তিনি। ঘটনার পর আহত নৈশপ্রহরী আলমগীরকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে আলমগীরকে মারপিট করা হয়নি দাবি করে ইউএনও সমর কুমার পাল জানান, কলহের জেরে বুধবার রাতে স্ত্রীকে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ফেলে উধাও হয়ে যান আলমগীর। পরে তাকে উদ্ধার করে শাজাহানপুর উপজেলায় তার মেয়ের বাসায় পাঠিয়ে দেয়া হয়। এসব বিষয় কানে আসলে বৃহস্পতিবার বিকেলে আলমগীরকে ডেকে নিয়ে কথা বলেন ইউএনও। সেখানে তিনি বিষয়গুলো সমাধান করতে না চাওয়ায় তাকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, কলহ মীমাংসা করার আগে যেন সে উপজেলা পরিষদ চত্বরে না আসে। আর অফিস থেকে বের হয়ে সহানুভূতি পেতেই আলমগীর মারপিটের মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন বলে দাবি ইউএনওর।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply