প্রধানমন্ত্রীর কাছে এক টুকরা ঘরের প্রত্যাশা আঁখির; ইতিহাস সৃষ্টির আনন্দ সানজিদার

|

সাফজয়ী নারী ফুটবলার আঁখি খাতুন। দেশে ফিরে যেমন বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতেছিলেন তেমনি বাস্তবতার কশাঘাতও উপেক্ষা করতে পারছিলেন না। পরিবারের যে ভালো একটি থাকার জায়গা নেই; অভাব-অনটনে থাকা পরিবার এখনও তার দিকেই তাকিয়ে থাকে একটু ভালো থাকার জন্য। তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে এক টুকরা ঘরের আবদার জানিয়ে রেখেছেন আঁখি।

আঁখি বলেন, আপনারা জানেন আমরা যারা নারী ফুটবলাররা আছি, তারা কেউ খুব ভালো ফ্যামিলি থেকে আসি নাই। অনেক কষ্ট করে এসছি। আমরা প্রায় সবাই আমাদের পরিবারের শেষ সম্বল। আমাদের টাকা দিয়েই সংসার চলে। আশা করছি প্রধানমন্ত্রী আমাদের নিরাশ করবেন না। ভালো কিছু দিবেন।

যে সানজিদার স্ট্যাটাসের সূত্র ধরে ব্যবস্থা হয়েছে ছাদখোলা বাসের তাকে তার আনন্দের বাঁধ যেন মানছে না। যমুনা নিউজকে বললেন, এটা বাংলাদেশের ইতিহাসে রেকর্ড, আমরাই ইতিহাস সৃষ্টি করেছি বলে মনে করি। আমাদের মনে হতো শুধু ইউরোপিয়ান লিগগুলোতেই হয়তো এমন সেলিব্রেশন করা হয়। আমার মনে হয়েছে যেহেতু এটা আমাদের প্রথম সাফ জয় সেহেতু আমাদের জন্যও এমন সেলিব্রেশন করলে ভালো হয়।

স্ট্যাটাস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মানুষ তো আসলে এতো ভেবে কাজ করে না। আমিও এতো কিছু ভেবে স্ট্যাটাসটি দেইনি। আমার মনের যে আক্ষেপ ছিল, আমার মনের যে কথাগুলো ছিল আমি তাই শেয়ার করেছি।

জয়ের বিষয়ে আঁখির অনুভূতি জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আসলে আমার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। বাংলাদেশের নারী ফুটবলারদের যে মানুষ এতো ভালোবাসে এটা আমাদের জানা ছিলো না। এতো ভালো রেসপন্স দেখে দেশের জন্য আরও ভালো কিছু করার আশা-প্রত্যাশা বেড়ে গেছে আমাদের।

এটিএম/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply