রাশিয়া বিশ্বকাপে বিয়ার সংকট!

|

বিশ্বকাপ মানেই দর্শকরা খেলা দেখার সাথে শহরে শহরে ঘুরোফেরা করবে, রাতে বার-বি-কিউ, বিয়ার খেয়ে পার্টিতে অংশগ্রহণ করবে। কিন্তু এবার রাশিয়ায় অনেকটা বিপদের মুখে পড়েছেন খেলা দেখতে আসা দর্শকরা। আনন্দ উদযাপনে পড়েছে ভাটার টান।

কেননা বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখতে আসা অনেক দর্শকই আর কিনতে পারছেন না বিয়ার। জানা গেছে, রাশিয়ায় বিয়ারের সংকট দেখা দিয়েছে তাই সবাইকে দিতে পারছে না দোকান মালিকেরা।

তবে কেনো এই বিয়ারের সংকট, এ নিয়ে অনেক সংবাদ মাধ্যম বিভিন্ন রিপোর্ট করেছেন। কেউ জানিয়েছেন, রাশিয়ার বারের মালিকেরা কত টা বিয়ার লাগবে তার আগাম হিসেব কষতে পারে নি। তাই আমদানি কম করায় দেখা দিয়েছে ঘাটতি।

তবে সিএনএন জানায়, কার্বন ডাই অক্সাইটের ঘাটতির কারণে বিয়ারের উৎপাদন কম হচ্ছে। আর এতেই রাশিয়ায় বিয়ারের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। কেননা কার্বন ডাই অক্সাইট বিয়ারের মধ্যে দেয়া হয় যাতে করে বুদবুদ উঠে। এছাড়া ইউরোপের  অ্যামোনিয়া কারখানায় উৎপাদন কম হওয়ায় এই বিয়ার সংকটের মুখোমুখি হতে হয়েছে। আরও জানানো হয় আগামী সপ্তাহে এই চাহিদা চরম আকার ধারণ করবে।

মস্কোর এক দোকান বলেন, আমরা ভাবতে পারিনি যে পর্যটকরা শুধুই বিয়ার চাইবে। আমরা অ্যালকোহলের অন্যান্য পণ্য নিয়ে প্রস্তুত ছিলাম। তিনি জানান, সাপ্লাই কম থাকায় আমাদের কাছে যে সব বিয়ার আছে তা আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শেষ হয়ে যাবে।

২০১১ সাল থেকে বিয়ার রাশিয়ায় অ্যালকোহলিক পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়। এর আগে ১০ শতাংশ কম অ্যালকোহল থাকলে তা সাধারণ পানীয় হিসেবে গণ্য হতো। এ সময় রাশিয়ায় একটি আইন পাশ করা হয় যে, রাত ১১ টা থেকে সকাল ৮ পর্যন্ত কোন ধরণের অ্যালকোহল বিক্রি করা যাবে না।

মাথা পিছু অ্যালকোহলের পানের দিক থেকে বিশ্বে রাশিয়া ১৪ তম দেশ। কিন্তু বিয়ার পানের দিক থেকে বিশ্বে ৩২তম দেশ রাশিয়া। চেক রিপাবলিক হলো বিয়ার পানে বিশ্বে শীর্ষ দেশ। জার্মানি ৪র্থ, আর আমেরিকা ১৭ তম দেশ।

এবারের বিশ্বকাপে অফিসিয়াল বিয়ার হরো বাডওয়াইজার। এবং খেলার দিন এই বাডওয়াইজার ছাড়া অন্য কোন ব্রান্ডের বিয়ার বিক্রি করা নিষিদ্ধ।

 

 









Leave a reply