মৃত চিকিৎসকের সার্টিফিকেট ব্যবহার করে চিকিৎসা: বিশেষ অভিযানে আটক প্রতারক

|

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের নাক, কান ও গলার ভুয়া বিশেষজ্ঞ ডাক্তার আকরাম হোসেন অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়েছে। আজ বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) এ খবর নিশ্চিত করেছেন ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো. আশিকুর রহমান। তিনি জানিয়েছেন, তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় ঢাকা থেকে আটক করা হয়েছে তাকে।

সিভিল সার্জন দফতার সূত্রে জানা যায়, বরিশাল মেডিকেল কলেজের ২৩ তম ব্যাচের ডাক্তার মো. আকরাম হোসেন ২০১৫ সালের ২৭ মার্চ মৃত্যুবরণ করেন। তার বাড়ি বাগেরহাট জেলার ভদ্রপোতা গ্রামে। স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ছিলেন তিনি। সিরাজগঞ্জ জেলার পুটিয়া গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে আক্তারুজ্জামান মৃত ডা. আকরামের সার্টিফিকেট ব্যবহার করে ঝিনাইদহ, আলমডাঙ্গা ও ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে নামিদামি বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হিসাবে রোগী দেখাসহ অপারেশন করে আসছিলো।

বিষয়টি জানাজানি হলে থাকে আক্তারুজ্জামানকে আটকের জন্য ঝিনাইদহ জেলা শহরের আরাপপুর এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করে স্বাস্থ্য বিভাগ, পুলিশ ও র‌্যাবসহ ভ্রাম্যমাণ আদালত। কিন্তু সুকৌশলে বেসরকারি ওই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় সে। সেই থেকে তার পিছু নেয় পুলিশ।

জেলা পুলিশ সুপার মো. আশিকুর রহমান জানান, মৃত ডাক্তারের কাগজপত্র এবং বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন নাম্বার ( ৩৫৩১৯) ব্যবহার করে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হিসাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে গেলো কয়েক বছরে অসংখ্য রোগী দেখেছে ওই ভুয়া ডাক্তার। অথচ এতদিন কারো নজরে আসেনি।

তিনি (এসপি) আরও জানান, শেষ পর্যন্ত ঢাকার গোয়েন্দা পুলিশের সহযোগিতায় আটক করা সম্ভব হয়েছে ভুয়া ডাক্তারকে। প্রাথমিকভাবে তার কাছ থেকে সিল প্যাডসহ বিভিন্ন কাগজপত্র পাওয়া গেছে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply