সালমান খানের বিতর্কিত জীবন নিয়ে আসছে ‘বিয়ন্ড দ্য স্টার’

|

সালমান খান।

বলিউডে সালমান খানের খ্যাতি সর্বজনবিদীত। গত তিন দশক ধরে হিন্দি সিনেমায় স্টারডমের শিখরে অবস্থান তার। বলিউডে তার এ ৩৩ বছরের রোমাঞ্চকর যাত্রা কোনো সিনেমার চেয়ে কম কিছু নয়। সেই রোমাঞ্চকর যাত্রা এবার দেখা যাবে ‘বিয়ন্ড দ্য স্টার’ নামের ডকুমেন্টারি সিরিজে। যেখানে উঠে আসবে সালমানের ক্যারিয়ার ও ব্যক্তিজীবনের উত্থান-পতনের অজানা সব গল্প।

যেকোনো সিনেমার গল্পের চেয়েও চমকপ্রদ বলিউডের মেগাস্টার সালমান খানের ব্যক্তিগত জীবন। একাধিক ব্যর্থ প্রেম, হরিণ হত্যা মামলা, হিট অ্যান্ড রান মামলা, পেশাগত জীবনের উত্থান-পতন, অগাধ সাফল্য, একাধিক তারকার সঙ্গে ব্যক্তিগত দ্বন্দ্ব, আবার অনেকের বিপদের সবচেয়ে উপকারী বন্ধু- সব মিলিয়ে বিতর্ক আর সালমান যেনো অনেকটাই সমার্থক।

এবার সালমানের জীবনের বিচিত্র সে সব দিক উঠতে চলেছে রুপালি পর্দায়। সালমান খানকে নিয়ে বানানো হচ্ছে ডকু-সিরিজ, নাম ‘বিয়ন্ড দ্য স্টার’। গত কয়েক মাস ধরেই কাজ চলছে সিরিজটির। বলিউডে সালমানের তিন দশকের যাত্রা তুলে ধরা হবে সেখানে।

সালমান যেসব অভিনেতা, পরিচালক এবং প্রযোজকদের সঙ্গে কাজ করেছেন, তাদের সাক্ষাৎকারও থাকবে এ সিরিজে। কথা বলা হবে তার পরিবারের সঙ্গেও। পর্দার বাইরে ‘টাইগার’ কেমন মানুষ? সেই প্রশ্নের উত্তরও দেবে এ ডকু-সিরিজ।

পরিবারের সদস্যদের মধ্যে তার বাবা সেলিম খান, ভাই আরবাজ ও সোহেল খানের সালমানকে নিয়ে টুকরো টুকরো কথা তুলে ধরা হয়েছে এ তথ্যচিত্রে। কথা বলেছেন বিভিন্ন সময়ে তার বিপরীতে কাজ করা নায়িকারাও, ভাগ্যশ্রী থেকে দিশা পাটানি পর্যন্ত অজস্র সহঅভিনেতা। বলিডিউ ও দক্ষিণের নির্মাতাদের মধ্যে সাজিদ নাদিদওয়ালা, ডেভিড ধাওয়ান, সুরাহ বরজাতিয়া, সঞ্জয় লীলা বনসালি, সুভাষ ঘাই এবং প্রভু দেবার চোখে সালমান কেমন সেটিও দর্শকরা জানতে পারবেন এই সিরিজে। সালমানের সঙ্গে বসবাস এবং কাজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন তারা।

আলোচিত এ ডকু সিরিজে সালমানের ছেলেবেলা, তারুণ্যের অজানা কথা জানবেন দর্শকরা। খান পরিবারের অ্যালবামের অদেখা কিছু ছবিও দেখার সুযোগ মিলবে। আর সব ছবি জুড়েই থাকবেন সালমান। সব ঠিক থাকলে এ বছর সালমানের জন্মদিনে অর্থাৎ ২৭ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে সিরিজটি।

এর আগে, সালমানের বান্ধবী ইউলিয়া ভন্তুর প্রথম তাকে এ সিরিজটি নির্মাণের কথা বলেন। এ ব্যাপারে বলিউড ‘ভাইজান’ বলেন, আমার বিষয়টি ভালো লেগেছে। এতো বছর যাদের সঙ্গে কাজ করেছি, তারা আমাকে নিয়ে কথা বলবেন। জানাবেন, আমি কেমন ছিলাম আর এখন কেমন হয়েছি। প্রত্যেকেই আমাকে নিয়ে কথা বলেছেন। আমাকে ঘিরে তাদের পছন্দ-অপছন্দের কথা জানিয়েছেন। এই ডকু-সিরিজটি খুব সততার সঙ্গে তৈরি করা হয়েছে।

আপাতত ‘টাইগার থ্রি’র কাজ নিয়ে ব্যস্ত সালমান খান। আগামী বছর এপ্রিলে মুক্তি পাবে ‘টাইগার’ ফ্র্যাঞ্চাইজির তৃতীয় কিস্তি। যেখানে সালমানের বিপরীতে দেখা যাবে ক্যাটরিনা কাইফকে। হিন্দির পাশাপাশি তামিল এবং তেলুগু ভাষাতেও মুক্তি পাবে সিনেমাটি। এদিকে তার ডকু-ফিল্মের কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। গোটা সিরিজটি দেখতে সালমান ভক্তদের অপেক্ষা করতে হবে আর মাত্র ক’দিন।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply