নতুন আইনে মাদকের গডফাদারদেরও মৃত্যুদণ্ড: প্রধানমন্ত্রী

|

মাদক ব্যবসায় জড়িত ব্যবসায়ীদের সাথে সাথে গডফাদার ও সিন্ডিকেটের সদস্যদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে নতুন আইন করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা। আজ বুধবার  বিকেলে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ও স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর পৃথক দুই প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান,  বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৯০’-এর অধীন সংঘটিত অপরাধের বিচার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আলাদা আদালত গঠন করা হবে।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিদ্যমান মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ১৯৯০-এ মাদক অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রয়েছে। তবে এই আইনে কোনো ব্যক্তির দখলে/কর্তৃত্বে বা অধিকারে মাদকদ্রব্য পাওয়া না গেলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ কম। ফলে মাদক ব্যবসায় জড়িত মাস্টারমাইন্ডরা সহজেই পার পেয়ে যায়। তাই মাদক ব্যবসায় পৃষ্ঠপোষকতাকারী ও মাদকের গডফাদারসহ মাদক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা রেখে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ প্রণয়ন করা হচ্ছে। সংশোধিত আইনে মাদক ব্যবসায় পৃষ্ঠপোষক ও মাদকের গডফাদারসহ মাদক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রাখার প্রস্তাব করা হবে। তাছাড়া এ আইনে মাদক ব্যবসায় পৃষ্ঠপোষক ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকেও আইনের আওতায় আনার জন্য মানি লন্ডারিং সংক্রান্ত অপরাধ তদন্তে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তাদের ক্ষমতা দেওয়া হচ্ছে।’

 









Leave a reply