স্ত্রীর মুখে দাড়ি থাকায় আদালতে ডিভোর্সের আবেদন

|

স্ত্রীর মুখে দাড়ি থাকায় আদালতে তালাকের জন্য আবেদন করেছেন স্বামী। তিনি জানান, বিয়ের আগে যখন প্রথম তাকে দেখানো হয়েছে তখন স্ত্রীর মাথায় গোমটা ছিলো তাই তিনি খেয়াল করতে পারেন নাই যে দাড়ি রয়েছে। এছাড়া সামাজিক রীতির কারণে বউয়ের চেহারা সুযোগ হয়নি। এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের আমেদাবাদে।

সংবাদ মাধ্যেমসূত্রে জানা যায়, স্বামী বিয়ের সাত দিন পর স্ত্রীকে সেলুনে যেতে দেখেন। পরে জানতে পারেন তার দাড়ি রয়েছে। এছাড়া কণ্ঠও পুরুষের মতো। তাই তিনি স্থানীয় আদালতে বিয়ে বিচ্ছেদের আবেদন করেন।

এদিকে আদালতে স্ত্রী জানান, তিনি তার স্বামীল দ্বারা মানসিক ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এখন ঘর থেকে বের করে দেয়ার জন্য মিথ্যা অভিযোগ করে বিচ্ছেদ চাচ্ছেন।

অবশ্য বিচারক এ আবেদন খারিজ করে দেন। বিচারক বলেন, বিষয়টি পুরোপুরি হরমোন ঘটিত। চিকিৎসা করলে তা সম্পূর্ণ নির্মূল করা সম্ভব।









Leave a reply