ফেরিঘাটে ঘরমুখো যাত্রীদের ঢল, গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া

|

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর
সকাল থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি রুটে দক্ষিণাঞ্চলের ঘরমুখো যাত্রীদের ঢল নেমেছে।  শিমুলিয়া ফেরি ঘাটে দেখা গেছে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। আবার গন্তব্যে পৌঁছতে দ্বিগুনেরও বেশি টাকা গুনতে হচ্ছে যাত্রীদের।

এদিকে লঞ্চসহ নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে পারাপার করা হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ বাসগুলো দূরপাল্লায় চলাচল করায় স্থানীয় যাত্রীরা পড়েছেন সীমাহীন দুর্ভোগে।

অপরদিকে শিমুলিয়া থেকে স্পীডবোটে আদায় হচ্ছে ১৩০ টাকার ভাড়া ২শ টাকা । লঞ্চে নেয়া হচ্ছে ৩০ টাকার ভাড়া ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। এভাবে যাত্রীরা নদী পার হতে এসে পড়ছেন বাড়তি ভাড়ার মুখোমুখি। কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া সকল যানবাহনই বাড়তি ভাড়া আদায় করছে । বাসগুলোতেও ছাদ বোঝাই করে যাত্রী নেয়া হচ্ছে। বাস ও মাইক্রোবাসে বরিশালের ভাড়া ২শ টাকার জায়গায় ৪শ টাকা, খুলনার ভাড়া ২শ টাকার স্থলে ৩শ টাকা, নড়াইলের ভাড়া ১৫০ টাকার স্থলে ২৫০ টাকা আদায় করা হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র মেরিন কর্মকর্তা আহমেদ আলী বলেন, গত মধ্যরাত থেকে এ রুট হয়ে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। তবে পর্যাপ্ত ফেরি থাকায় বেশি সময় আটকে থাকতে হচ্ছে না। প্রায় ৩শ যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে।









Leave a reply