শাওন হত্যার প্রতিশোধ নিতে রাজপথ দখল করতে হবে: মির্জা ফখরুল

|

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারের জন্য আমাদের দেশের জনগণ ন্যায্য দাবিতে যে আন্দোলন করছে তাকে তারা গুম করে, খুন করে, গুলি চালিয়ে, অত্যাচার-নির্যাতন করে দমিয়ে দেবে। তাদেরকে বলতে চাই, গুলি করে, গুম করে আন্দোলন দমানো যাবে না। শাওন হত্যার প্রতিশোধ নিতে চাইলে রাজপথ দখল করে এই ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে পরাজিত করে সত্যিকারের গণতন্ত্র ও জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) পল্টনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল( বিএনপি) এর ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত জনসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের মিথ্যা মামলায় অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় গৃহে অন্তরীণ অবস্থায় আছেন দেশন্ত্রী খালেদা জিয়া। এই ৪৪ বছরে আমাদের বহু নেতা ও সহকর্মী শহীদ হয়েছেন। এই সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশ থেকে গণতন্ত্রকে নির্বাসিত করেছে। এই সরকার আজকে জনগণের অধিকার হরণ করেছে।


মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সারাজীবন গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম ও লড়াই করেছেন। তাকে আজকে অন্তরীণ করে রেখেছে। আমাদের নেতা, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রায় ৮ হাজার মাইল দূরে নির্বাসিত করে রেখেছে। আমাদের ৩৫ লক্ষ মানুষের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদেরকে হয়রানি করছে। তারা মনে করেছে যে, গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারের জন্য আমাদের দেশের জনগণ যে ন্যায্য দাবিতে আন্দোলন করছে তাতে তারা গুম করে, খুন করে, গুলি চালিয়ে, অত্যাচার-নির্যাতন করে সে আন্দোলনকে দমিয়ে দেবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের জন্মই হয়েছিল গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য। বাকশালের এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে বিএনপি গঠন করে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন আমাদের শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সংসদীয় গণতন্ত্র দিয়েছিলেন স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করে। আজকেও সারা দেশের মানূষ লড়াই-সংগ্রাম করছে গণতন্ত্রের জন্য।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা দলের পক্ষ থেকে খুব পরিষ্কার করে বলেছি যে এই ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে সরিয়ে আমরা সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে আমরা বাধ্য করবো একটি নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে। আমরা বাধ্য করবো এই সংসদকে বিলুপ্ত করে দিয়ে নতুন নির্বাচন কমিশনের মধ্য দিয়ে নতুন পার্লামেন্ট গঠন করতে। নতুন সরকার নির্বাচন করবো আমরা।

তিনি আরও বলেন, আজকে শাওন হত্যার প্রতিশোধ নিতে চাইলে আমাদের অন্যান্য শহীদ ভাইদের হত্যার প্রতিশোধ নিতে চাইলে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ হয়ে দুর্বার গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে রাজপথ দখল করে এই ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারকে পরাজিত করে সত্যিকারের গণতন্ত্র ও জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আজ আর কোনো বক্তব্য নয়। আসুন আমরা সুশৃঙ্খলভাবে র‍্যালি করে আবারও প্রমাণ করি যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল একটি সর্ববৃহৎ উদারপন্থী গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। বিএনপি হলো সেই দল যারা সংগ্রাম করে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনবে। বিএনপি হলো সেই দল যারা সংগ্রাম করে দেশনেত্রী বেগম জিয়াকে কারাগার থেকে বের করে আনবে। তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনবে। আসুন সেই লক্ষ্যে আমরা আমাদের র‍্যালি শুরু করি। আমরা অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে এই সরকারের পদত্যাগ, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, নতুন পার্লামেন্ট নির্বাচন দাবি করে ও আমাদের ভাইদের রক্তের প্রতিশোধ নিতে আন্দোলনের মধ্যে জনগণকে সম্পৃক্ত করে আওয়ামী সরকারকে পরাজিত করি। আজ এই হোক আমাদের লক্ষ্য।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply