লাখ টাকার ফোনের লোভ কাবু করতে পারেনি আমিনুলকে, সততার পুরস্কার দিলেন মেয়র

|

আট বছর ধরে গুলশানে রিকশা চালানো আমিনুল ইসলাম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক সীমা আহম্মেদকে যাত্রী করে তোলেন। যাত্রী নেমে যাওয়ার পর দেখতে পান তার রিকশার গদির ফাঁকে একটি মোবাইল ফোন। সেটি ছিল আইফোন থার্টিন প্রো ম্যাক্স, যার দাম লাখ টাকার বেশি।

ফোনটি নিয়ে কী করবেন চিন্তায় পড়ে যান আমিনুল। অপেক্ষায় থাকলেন কেউ কল দেয় কিনা। কিন্তু কল আসে না। একপর্যায়ে চার্জ শেষ হয়ে বন্ধ হয়ে যায় ফোনটি। প্রথমে তিনি চার্জার কেনার চেষ্টা করেন। কিন্তু চার্জারের দাম ছিল তার সামর্থ্যের বাইরে। তখন তিনি সেই মোবাইলের সিম খুলে নিজের ফোনে চালু করেন। এবং অপেক্ষা করতে থাকেন মালিকের ফোনের। পরদিন একজন ফোন করলে তিনি মালিকানা নিশ্চিত হন এবং পুলিশের মাধ্যমে তাকে ফোনটি ফিরিয়ে দেন।

আমিনুল ইসলামের এই সততার কথা জানতে পারেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। সিদ্ধান্ত নেন, তাকে এই সততার পুরস্কার দেবেন তিনি। রোববার (২১ আগস্ট) দুপুরে আমিনুলের হাতে নিজস্ব ফান্ড থেকে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন মেয়র।

এ সময় উপস্থিত সবাই দাঁড়িয়ে করতালির মাধ্যমে আমিনুলের সততার প্রতি সম্মান জানান। মেয়র আতিকুল বলেন, একটা মানুষের মধ্যে কতটা সততা থাকলে দামি ফোনের প্রতি লোভ না করে এভাবে ফেরত দিতে পারেন! আমাদের সমাজের এমন সৎ নির্লোভ মানুষের খুব প্রয়োজন। তাই আমরা তাকে সম্মান দেখিয়ে পুরস্কৃত করছি।

পুরস্কার পেয়ে খুশি আমিনুল ইসলাম বলেন, ভালো কাজ করলে যে সম্মান পাওয়া যায়, সেটা আমি আজ টের পেলাম। মেয়রের হাত থেকে পুরস্কার নিতে আমি যে এখানে আসব, সেটা আমি কখনও কল্পনা করিনি।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply