মশার কাছে অসহায় আদালত!

|

An Aedes Aegypti mosquito is seen in a lab of the International Training and Medical Research Training Center (CIDEIM) in Cali, Colombia February 2, 2016. REUTERS/Jaime Saldarriaga - RTX2570B

ধনেশ লেসধন, ভারতীয় এক নাগরিক। ভেবেছিলেন দেশের সর্বোচ্চ আদালতের মাধ্যমে ‘বিচার’ পাবেন। তাই সুপ্রিম কোর্টে রিট করে বসলেন। কিন্তু আদালতের দুই বিচারক বললেন, আমরা ঈশ্বর না, আপনার আবদার একমাত্র ঈশ্বরই পূরণ করতে পারেন!’

কী এমন বিষয় নিয়ে ধনেশ আদালত গেলেন যা কিনা ঈশ্বর ছাড়া কেউ করতে পারে না?

মশাই আদালতকে এইভাবে ‘অপারগ’ করে তুলেছে! ভারত থেকে মশাকে ‘বিলুপ্ত’ করে দেয়ার আবদার নিয়ে গত শুক্রবার আদালতে রিট করেন ধনেশ লেসধন। রিটটি খারিজ করে দেয়ার আগে শুনানিতে উপরিউক্ত কথাগুলো বলেন বিচারপতিরা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে সারা পৃথিবীতে ৭ লাখ ২৫ হাজার লোক মারা যায় মশাবাহিত রোগের কারণে। আর এই মশা নিধনে বিজ্ঞানী ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা দশকের পর দশক কাজ করে যাচ্ছে।

ধনেশ হয়তো ভেবেছিলেন আদালত তাকে সাহায্য করতে পারবে। তাই, মশাবাহিত রোগ থেকে বাঁচার জন্য সরকারকে সমন্বিত নির্দেশনা প্রদানের জন্য আদালতে রিট করেন। আদালত তাদের অসহায়ত্ব প্রকাশ করে বলেন, আমরা মনে করি কোনো আদালত দেশ থেকে মশা নিধনে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিতে পারে না। এমন কিছু করতে আবেদন করবেন না যা শুধুমাত্র ঈশ্বর করতে পারে। আমরা ঈশ্বর না।

বিচারক দীপক গুপ্ত বলেন, আমরা প্রত্যকের বাড়িতে যেয়ে বলতে পারবোনা যে মশা মারুন। তবে মশার কামড়ে মারা যাওয়ার ব্যাপারে সরকার জবাবদিহিতা করতে পারে।

এদিকে মশা বাহিত রোগ নিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মশার হাত থেকে মুক্তি পেতে পৃথিবীবাসীর আসলে কোন উপায় নেই।

/টিবিজেড









Leave a reply