কালীগঞ্জে শোক দিবসের খাবার বিতরণ নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৬

|

ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজ থেকে নেয়া ছবি।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে শোক দিবসের খাবার বিতরণ নিয়ে দু’পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার ১১নং রাখালগাছি ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে এ ঘটনা ঘটে। এতে দু’পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাখালগাছি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর খাবার বিতরণ চলছিল। এ সময় নরদহি গ্রামের ইরাদ হোসেন খাবার বিতরণ করছিলেন। হঠাৎ দরবেশ আলী নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা খাবারের পাতিল নিয়ে চলে আসতে চাইলে ইরাদ হোসেন ও দরবেশ আলীর মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এরই এক পর্যায়ে রঘুনাথপুর এলাকার মিরাজ হোসেন নামের একজন ইরাদকে মারধর করেন। তাদের নিরস্ত করতে গেলে ইরাদের চাচাতো ভাই টনিকেও মারধর করা হয়। পরে কয়েকজন যুবক ইরাদকে বেধড়ক মারধর করেন বলে জানা গেছে।

মারধরের শিকার ইরাদ হোসেন জানান, খিচুড়ি বিতরণ নিয়ে একটু ঝামেলা হয়েছিল, এর বেশি কিছু না। পরে বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে।

ইরাদের চাচাতো ভাই টনি হোসেন জানান, ইরাদকে বাঁচাতে গিয়ে আমি নিজেও মারধরের শিকার হয়েছি। রঘুনাথপুর গ্রামের মিরাজ প্রথমে
মারধর শুরু করেন বলে জানান টনি।

এ বিষয়ে রাখালগাছি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলাম মন্টু বলেন, শোক দিবসের অনুষ্ঠানের খাবার বিতরণ নিয়ে একটু ঝামেলা হয়েছিল। পরে দু’পক্ষকে ডেকে মীমাংসা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply