নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও গ্যাস উত্তোলনে সক্ষমতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ বিশেষজ্ঞদের

|

জ্বালানি সঙ্কট মোকাবেলায় নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও গ্যাস উত্তোলনে সক্ষমতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন জ্বালানি বিশেষজ্ঞরা।

বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) আয়োজিত ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকট: নাগরিক ভাবনা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তারা বলেন, ২০১০ সালে বিদ্যুৎখাতে দায়মুক্তি আইন করে গত ১২ বছরে ১১টি কোম্পানিকে ৬০ হাজার কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। যা বর্তমান জ্বালানি ও অর্থনৈতিক সংকটের জন্য দায়ী।

বৈঠকে সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেন, সরকারের ভুল সিদ্ধান্ত ও পরিকল্পনার কারণে দেশ চলে গেছে খাদের কিনারায়। বর্তমানে দেশের জ্বালানি সংকটের জন্য অনুসন্ধান ও উত্তোলন না করাকে এবং বিদেশি জ্বালানির উপর ক্রমাগতভাবে নির্ভরশীলতা বাড়ানোকে দায়ী করেন বক্তারা। তাই ক্রমাগতভাবে জ্বালানি যোগান দিতে আমদানিকৃত জ্বালানির উপর নির্ভরশীলতা কমানোর পরামর্শ দেন আলোচকরা। তারা বলেন, অনুসন্ধানের মাধ্যমে আবিষ্কার ও উত্তোলন করে আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে আনতে হবে।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply