১০ দফা দাবি মানলো প্রশাসন, গভীর রাতে হলে ফিরেছে খুবির শিক্ষার্থীরা

|

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

খুলনা ব্যুরো:

প্রায় তিন ঘণ্টা আন্দোলনের পর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত ছাত্রীদের ১০ দফা দাবি মেনে নিয়েছে প্রশাসন। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) গভীর রাত পৌনে দুইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের হাদি চত্বরে লিখিতভাবে ছাত্রীদের সকল দাবি মেনে নেন অপরাজিত হলের প্রভোস্ট রহিমা নুসরাত রিম্মি। দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা ও ছাত্রীদের ১০ দফা দাবিতে প্রভোস্টের স্বাক্ষরের পরই আন্দোলনরত ছাত্রীরা হলে ফিরে যায়।

এর আগে অপরাজিতা হলে রাইসকুকার ও অন্যান্য রান্নার সরঞ্জাম নিষিদ্ধের প্রতিবাদে মঙ্গলবার রাত ১১টা থেকে আনোদালনে নামে অপরাজিতা হলের ছাত্রীরা। পরে তাদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে আন্দোলনে যোগ দেয় অন্যান্য হলের শিক্ষার্থীরাও। রাত পৌনে দুইটা পর্যন্ত অপরাজিতা হল ও অদম্য বাংলাদেশের সামনে হাদি চত্বরে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে।

জানা যায়, মঙ্গলবার অপরাজিতা হলের এক ছাত্রী বটি দিয়ে গলা কাটার চেষ্টা করে। এরপরই হলে ছাত্রীদের রান্না করার সরঞ্জামাদি, ইলেকট্রনিক ডিভাইস জব্দ করার নির্দেশ দেয় প্রশাসন। পরবর্তীতে এসব সরঞ্জাম কারো রুমে পাওয়া গেলে তার সিট বাতিল করার হুমকিও দেয়া হয়। এছাড়াও প্রশাসনের বাজে আচরণ নিয়েও ক্ষোভ আছে শিক্ষার্থীদের। এসবের প্রতিবাদেই আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। তবে ১০ দফা দাবি লিখিতভাবে মেনে নেয়ার পর আন্দোলন স্থগিত করেছে শিক্ষার্থীরা।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply