নারী প্রধান শিক্ষককে ঘুসি মেরে রক্তাক্ত করলেন এটিও, হাসপাতালে ভর্তি

|

ছবি: সংগৃহীত

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়িতে এক নারী প্রধান শিক্ষককে মেরে রক্তাক্ত করেছেন সহকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুভায়ন খীসা। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকালে সুভায়ন খীসার কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে গেলে আহত নারী প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান সংশ্লিষ্ট অফিসের কর্মচারীরা। আহত প্রধান শিক্ষকের নাম মৌসুমি ত্রিপুরা। তিনি জেলা সদরের মহালছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। বর্তমানে ওই নারী প্রধান শিক্ষক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মৌসুমির ত্রিপুরার অভিযোগ, সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার বিদ্যালয়ের বাউন্ডারি ওয়াল নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছে অনেকদিন ধরে। বিষয়টি লিখিতভাবে জানানোর জন্য সহকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুভায়ন খীসার অফিসে গেলে ক্ষোভ দেখিয়ে তেড়ে এসে গায়ে হাত তোলেন অভিযুক্ত শিক্ষা অফিসার। ঘুসির আঘাত পেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অজ্ঞান হয়ে পড়েন তিনি। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তার জ্ঞান ফেরে। আহত শিক্ষকের মুখে ও চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, চোখে মুখে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন। সেলাই করা হয়েছে। অবজারভেশনে রাখতে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এদিকে, ঘটনার খবর শুনে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত শিক্ষিকাকে দেখতে আসেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা মেহের ইয়াসমিনসহ সংশ্লিষ্টরা। তবে অভিযোগের সত্যতা জানতে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করেও কোনো সাড়া মেলেনি অভিযুক্ত সুভায়ন খীসার কাছ থেকে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply