স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-মার্কিন রাষ্ট্রদূত বৈঠক: নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

|

মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সাথে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের সাথে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিরাপত্তা ক্ষেত্রে আগের চেয়ে বেশি সহযোগিতা করতে চায়। সীমান্তে কোস্ট গার্ড ও বিজিবিকে প্রশিক্ষণেও যুক্তরাষ্ট্র সহায়তা করবে বলে জানান তিনি।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকালে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস। বৈঠক শেষে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রশিক্ষণ ও সক্ষমতা বৃদ্ধি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। ইতোমধ্যে এই বিষয়ে দুই দেশ একসাথে কাজ করছে বলেও জানান তিনি। পিটার হাস বলেন, বাংলাদেশে আরও কীভাবে বৃহৎভাবে কাজ করা যায় সেটা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে র‍্যাবের যেভাবে কাজ করার কথা সেভাবে তারা কাজ করেনি। আর এজন্য সংস্থাটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। আমরা বলেছি, কোনো অভিযোগ পেলে সাজা দেয়া হয়। নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় সাজা খাটছে দোষীরা। আপিলে আছে। পুলিশের অনেকের সাজা হয়েছে। আত্মরক্ষার কিছু ঘটনা ঘটে। তারা বলছে, সাজার বিষয় জানানো হয় না। আমরা বলেছি, জানানো হয়। গণমাধ্যম মুক্ত এখানে। এছাড়া, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আরও সক্রিয় হওয়ার জন্য মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে বলা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এখন ভালো বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রদূত। তবে জানতে চেয়েছেন, নির্বাচন পরিস্থিতি পর্যন্ত এমন থাকবে কিনা। আমরা বলেছি, নির্বাচনের সময় ইসির অধীনে থাকবে পুলিশ। বিরোধীদল দল সভা-সমাবেশ করতে পারছে নির্বিঘ্নভাবে।

আরও পড়ুন: রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল কিনতে চায় বাংলাদেশ, সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply