নরসিংদীতে প্রবাসীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

|

স্টাফ রিপোর্টার,নরসিংদী:

নরসিংদীর পলাশের ঘোড়াশালে মো. কামাল সারোয়ার নামের এক প্রবাসীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, ডাকাত দলটি বাড়ির সদস্যদের জিম্মি করে স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকা, ল্যাপটপ ও মুঠোফোনসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল লুট করেছে। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ভোরের আগে পলাশের ঘোড়াশাল পৌরসভার ভাগ্যেরপাড়া এলাকায় ওই বাড়িতে এই ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী পরিবারটির দাবি, ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে বাড়িটির দ্বিতীয় তলার বারান্দার গ্রিল ভেঙে ৮ থেকে ১০ জন ডাকাত ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে। পরে ডাকাত দলটি তাদের ১৬ ভরি সোনা, আলমারিতে রাখা প্রায় ৫৫ হাজার টাকা, একটি মুঠোফোন ও ল্যাপটপ নিয়ে ভোর ৪টার দিকে বেরিয়ে যায়।

মো. কামাল সারোয়ার (৫৫) ১৮ বছর সিঙ্গাপুরে প্রবাস জীবন কাটিয়ে গত ৭ বছর ধরে দেশে ফিরে থিতু হন। বর্তমানে ঘোড়াশালের ওয়াবদা গেটের সামনে দোকান ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রীর ব্যবসা করেন তিনি।

ভুক্তভোগী পরিবারটি বলছে, দুইতলা বাড়িটির দ্বিতীয় তলায় একটি ইউনিটে পরিবারটির পাঁচ সদস্যের বসবাস। ডাকাতির সময় তারা নিজ নিজ ঘরে ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। কামাল সারোয়ারের স্ত্রী খালেদা আক্তার জানান, গরমের কারণে তারা সবসময়ই ঘরগুলোর জানালা ও বারান্দার দরজা খুলে ঘুমান, গতরাতেও জানালা খুলেই ঘুমাচ্ছিলেন। ভোররাতে বারান্দার গ্রিল ভেঙে ৮ থেকে ১০ জন ডাকাত ঘরের ভেতর প্রবেশ করে। খালেদা বলেন, ঘরের ভেতরে ডাকাতদের অবস্থান টের পেয়ে আমরা সবাই হতভম্ব হয়ে যাই। আমরা কোনোরকম চিৎকার চেঁচামেচি না করায় তারা আমাদের শারীরিকভাবে কোনো আঘাত করেনি।

তিনি আরও বলেন, প্রথমেই তারা আমার ঘরের স্টিলের আলমারি চাবি দিয়ে খুলে ১৬ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে। পরে পাশের ঘরে গিয়ে বিভিন্ন আসবাবপত্র ভেঙে একটি ল্যাপটপ, একটি মুঠোফোন ও নগদ ৫৫ হাজার টাকা নিয়ে যায় তারা। আতঙ্কে আমরা সবাই চুপসে গিয়েছিলাম, শুধু চেয়ে চেয়ে দেখেছি, কিছুই বলতে পারিনি। পরে স্বর্ণালংকারসহ লুট করা এসব মালামাল নিয়ে ভোরের আগে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় তারা।

জানতে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইলিয়াস জানান, খবর পেয়ে আজ সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বিষয়টি ডাকাতি না চুরি, তা আমরা নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করছি। এই ঘটনায় পুলিশি তদন্ত শুরু হয়েছে। ভুক্তভোগী পরিবারকে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply