শিশুখাদ্যের বাজারও বেশ উত্তপ্ত

|

বাজারে সব ধরনের পণ্যের মূল্যবৃদ্ধির সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে শিশুখাদ্যের দামও। ক্রেতাদের অভিযোগ, প্রশাসনের তদারকি নেই, তাই সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো নীরবেই মূল্য বৃদ্ধির প্রতিযোগিতা করছে। ব্যবসায়ীরা দাম বৃদ্ধির জন্যে বিশ্ববাজার পরিস্থিতিকে দুষছেন। তারা বলছেন, ডলারের উচ্চমূল্যের প্রভাব পড়ছে মোকামে। অব্যাহতভাবে দাম বাড়ায় শিশুদের পুষ্টি ঘাটতি তৈরি হতে পারে বলেও মনে করছেন ক্রেতারা।

এক বছরের ব্যবধানে বিভিন্ন ধরনের শিশুখাদ্যের দাম দ্বিগুণের কাছাকাছি। এক বছর আগেও যেখানে শিশুদের ১৮০০ গ্রামের প্যাকেটজাত দুধ বিক্রি হতো ২ হাজার ৩০০ টাকায়। সেটির দাম বেড়ে এখন ৩ হাজার টাকার কাছাকাছি।

শিশুখাদ্যের বড় অংশই আমদানি করে স্থানীয় চাহিদা মেঠাতে হয়। ডলারের উচ্চমূল্যের প্রভাব পড়েছে আমদানি বাণিজ্যে। অনেকে বিশ্ববাজার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। ব্যবসায়ীরা বলছেন, আমদানি কম হচ্ছে বলেই বাজারে এর প্রভাব পড়েছে।

বেড়েছে নুডলস ও তরল দুধের দামও। দোকানদাররা বলছেন, তাদের বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে, কারণ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানই দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

শিশুখাদ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণের জোরালো দাবি জানিয়েছেন অভিভাকরা। বলছেন, এভাবে দাম বাড়তে থাকলে শিশুদের জন্যে সুষম খাবার যোগান অনেকের জন্যে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply