ব্রেন্টফোর্ডের কাছে ৪ গোলে বিধ্বস্ত দিশেহারা ম্যানইউ

|

ছবি: সংগৃহীত

কোনো ক্লাবের খারাপ সময় যেতেই পারে। তবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের কোনো জায়ান্ট ক্লাব যদি আসর শুরু করে ব্রাইটন ও ব্রেন্টফোর্ডের মতো পুঁচকে ক্লাবের কাছে হেরে, তবেও এত কথা হতো না। তবে ২-১ গোলে প্রিমিয়ার লিগ শুরুর পর ব্রেন্টফোর্দের কাছে ৪ গোলে উড়ে যাওয়ার ম্যাচে কেবল লজ্জায়ই ডোবেনি রেড ডেভিলরা, দেখিয়েছে ম্যানচেস্টারের এই কুলীন ক্লাবে কিছুই যেন ঠিক নেই!

ব্রেন্টফোর্ডের ঘরের মাঠে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে প্রথম একাদশে নিয়েই ম্যাচ শুরু করে এরিক টেন হ্যাগের দল। কিন্তু ১০ মিনিটেই গোল খায় ম্যানইউ। স্বাগতিক মিডফিল্ডার জোশুয়া দাসিলভার শট ডি গিয়ার হাত ফসকে জড়ায় রেড ডেভিলদের জালে। দ্বিতীয় গোলেও আছে ডি গিয়ার ভুল। তার শর্টপাস কাল হয় দলের জন্য। দ্রুত বল দখলে নিয়ে ম্যাথিয়াস জেনসেন দ্বিতীয় গোল করেন ব্রেন্টফোর্ডের হয়ে; আর তাকিয়ে তাকিয়ে দেখেন অসহায় ডি গিয়া।

ছবি: সংগৃহীত

ম্যাচের ৩০ মিনিটে কর্নার থেকে বেন মিরের হেডে তৃতীয় গোল খাওয়ার লজ্জা পায় রেড ডেভিলরা। হ্যারি ম্যাগুয়ারের নেতৃত্বে ম্যানইউর রক্ষণভাগ যে রক্ষা করতে পারছে না কিছুই, সেটাই পরিষ্কার হয় সেট পিসের এই গোল থেকে। এরপর ম্যাচের ৩৫ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে দুর্দান্ত পেসে লুক শকে পেছনে ফেলে ব্রেন্টফোর্ডকে চতুর্থ গোল এনে দেন ব্রায়ান এমবেউমো। এত দ্রুত সময়ের মধ্যে ৪ গোলের খাওয়ার অভিজ্ঞতা আগে কখনই হয়নি রেড ডেভিলদের। ম্যাচের বাকি সময় কোনো পক্ষই আর গোল করতে না পারলে ৪-০’তে হারের লজ্জা পায় ম্যানইউ।

ম্যানইউ রক্ষণের প্রধান সেনানী হ্যারি ম্যাগুয়ার। ছবি: সংগৃহীত

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৪ গোল হজম করতে হয়েছেন ইউনাইটেডকে। এর আগে, টটেনহ্যাম ও লিভারপুল এই লজ্জা দিয়েছে রেড ডেভিলদের। তবে লক্ষ্য করার বিষয় হচ্ছে। এই ৩টি ঘটনাই ঘটেছে ২০২০, ২০২১ ও ২০২২ সালে।

আরও পড়ুন: ক্যাম্প ন্যুতে হতাশাজনক ড্র দিয়ে শুরু বার্সার লা লিগা

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply