জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রভাবে ঊর্ধ্বমুখী সব ভোগ্যপণ্যের দাম, কমেছে সরবরাহও

|

পরিবহন ভাড়া বৃদ্ধির প্রভাব পড়ছে প্রায় সব ভোগ্যপণ্যের দামে। দেশের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে সেই উত্তাপ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রায় সব রুটের পণ্যবাহী গাড়ির ভাড়া বেড়েছে ৫০ শতাংশের বেশি। বাড়তি ভাড়া যুক্ত হওয়ায় ভোগ্যপণ্যের দামও ঊর্ধ্বমুখী।

চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ থেকে টাঙ্গাইলের মধুপুরে আগের পণ্যবাহী কাভার্ডভ্যানের ভাড়া ছিল ১৬ হাজার টাকা। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর এই ভাড়া গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২৬ হাজারে। সবচেয়ে বেশি খরচ বেড়েছে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে। ১৪ হাজার টাকার ভাড়া এখন ২১-২২ হাজার টাকা। বাড়তি এই পরিবহন খরচের প্রভাব সরাসরি গিয়ে পড়ছে ভোগ্যপণ্য সরবরাহে। চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ থেকে আগে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থানের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যেতো গড়ে দেড় হাজার পণ্যবোঝাই ট্রাক- কাভার্ডভ্যান। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর কমেছে এ সংখ্যা।

সরবরাহের পাশাপাশি মূলবৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের পাইকারি বাজারেও। ৮৫ টাকার মশুর ডাল এখন ৯৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে মসলার ঝাঁঝও। হাজার টাকার এলাচির কেজি এখন ১৩০০ টাকা, ২০০ টাকা বেড়ে লবঙ্গ এখন ১২০০-১২৫০ টাকা। কেজিতে ৬০ টাকা বেড়েছে জিরার দাম।

প্রতিদিন গড়ে অন্তত দেড় হাজার কোটি টাকার লেনদেন হয় খাতুনগঞ্জে। ডলার ও তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর তা অন্তত ৩০ শতাংশ কমেছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply