বংশের আধিপত্য নিয়ে কোন্দল, প্রতিবন্ধী কিশোরকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

|

জুয়েল ভূঁইয়া।

হাতুড়িপেটায় গুরুতর আহত শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোর জুয়েল ভূঁইয়া (১৮) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। শনিবার (১৩ আগস্ট) সন্ধ্যায় খুলনা ৫শ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই কিশোরকে হাতুড়িপেটা করে প্রতিপক্ষের লোকজন। জুয়েল নড়াইল সদর উপজেলার বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের কর্মচন্দ্রপুর গ্রামের পান্নু ভূঁইয়ার ছেলে।

জানা গেছে, কর্মচন্দ্রপুর গ্রামে সিকদার ও ভূঁইয়া বংশের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে উত্তেজনা চলছিল। শারীরিক প্রতিবন্ধী জুয়েল বাড়ির পার্শ্ববর্তী বাজারের একটি দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতো। প্রতিদিনের মতো গত ৯ আগস্ট সকালে বাড়ি থেকে ভ্যানযোগে দোকানে যাচ্ছিল জুয়েল। মাঝপথে ইয়াসিন, ফিরোজ, হাফজসহ ৫/৬ জন জুয়েলের গতিরোধ করে হাতুড়ি দিয়ে মাথা ও বুকসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম করে।

পরে গুরুতর আহত জুয়েলকে খুলনা ৫শ শয্যার হাসপাতালের ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সন্ধ্যায় মারা যায় জুয়েল ভূঁইয়া।

এ ঘটনায় জুয়েলের চাচা মান্নান ভূঁইয়া বাদি হয়ে ঘটনার রাতেই সদর থানায় একটি মামলা করেন। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্বে) মাহমুদুর রহমান জুয়েল ভূঁইয়ার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করে বলেন, তিনিসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। এ ঘটনায় আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply