প্রেমকে পরিণয়ে রূপ দিতে দিনাজপুরে অস্ট্রিয়ান নাগরিক, করেছেন বাংলাদেশের প্রশংসা

|

স্টাফ করেসপনডেন্ট, দিনাজপুর:

একবার দেখা, এরপর ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলাপচারিতায় প্রেম। পরে, অস্ট্রিয়া থেকে বাংলাদেশের উত্তরের জেলা দিনাজপুরে প্রেমিকার বাসায়। সবশেষ ৯ আগস্ট দিনাজপুরে পর্যটন মোটেল ও রেস্টুরেন্টে ধুমধাম করে বাঙালি রীতিনীতিতে বিয়ে সম্পন্ন।

বলছি, অস্ট্রিয়ান নাগরিক অ্যাড্রিয়ান বারিসো নিরা (৩৫) ও দিনাজপুরের মেয়ে নুসরাত জাহান রাম্পার প্রেমের পূর্ণতা পাওয়ার গল্প। দিনাজপুরের ৩ নং উপশহরের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে রাম্পা।

রাম্পা জানান, ২০১৯ সালে অ্যাড্রিয়ানের সঙ্গে আমেরিকায় দেখা হয় তার। পরে ফেসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের কথা হয়। ২০২০ সালে তারা বিয়ে করার জন্য সম্মত হলেও করোনায় সেটি পিছিয়ে যায়। পরে পরিবারের সম্মতি নিয়ে নিরা গত ৭ আগস্ট বাংলাদেশে আসেন। নিরার পরিবারও তাদের বিয়েতে সম্মতি দেয়। অতঃপর দিনাজপুর পর্যটন মোটেলে বিয়ের সাজসজ্জা করা হয়। দিনাজপুরের বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ নিকটাত্মীয়দের উপস্থিতিতে ৯ আগস্ট রাতে বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বিয়ের পরে রাম্পা বলেন, মনের দিক দিয়ে অনেক ভালো মানুষ অ্যাড্রিয়ান। তার ব্যবহার খুবই ভালো। আমরা যেন সারাজীবন এভাবে একসঙ্গে থাকতে পারি সেজন্য সকলের দোয়া চাই। আমাকে তার দেশে নিয়ে যেতে চায় অ্যাড্রিয়ান। এতে প্রায় ছয় মাসের মতো সময় লাগবে।

অ্যাড্রিয়ান বলেন, ২০১৯ সালে তাকে একঝলক দেখেছিলাম। এরপর দীর্ঘ চার বছর ধরে তাকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেমন দেখেছি তার থেকেও অনেক ভালো সে। এদেশের প্রকৃতি ও মানুষ খুব ভালো। খাবার সুস্বাদু। স্ত্রীকে আমার দেশে নিয়ে যেতে চাই।

অ্যাড্রিয়ান বারিসো নিরা অস্ট্রিয়ার হিয়ানার বাসিন্দা। পেশায় তিনি একজন প্রকৌশলী। বিয়ের দ্বিতীয় দিনে নব দম্পতি দিনাজপুরের বিভিন্ন ঐতিহাসিক জায়গাসমূহ ঘুরে দেখেন।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply