বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সামরিক সম্পর্ক ‘আরও বাড়াতে প্রতিশ্রুতি’

|

ছবি: সংগৃহীত

ত্রি-সেবা সামরিক সহযোগিতার পরিধি এবং পরিসরে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে, দ্বিপাক্ষিক সামরিক সম্পর্ক আরও উন্নত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশ ও ভারত। বুধবার (১০ আগস্ট) ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে দ্বিতীয় বাংলাদেশ-ভারত ট্রাই-সার্ভিস স্টাফ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে এ প্রতিশ্রুতি দেয়া হয় বলে জানিয়েছে ইন্টিগ্রেটেড ডিফেন্স স্টাফ (আইডিএস)।

সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকের-উজ-জামানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর (বিএএফ) ১৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল চতুর্থ বার্ষিক প্রতিরক্ষা সংলাপ এবং দ্বিতীয় ট্রাই সার্ভিসেস স্টাফ আলোচনায় যোগ দিতে এই মুহূর্তে ভারত সফর করছে।

ওয়াকের-উজ-জামান ভারতের এয়ার মার্শাল বিআর কৃষ্ণা এবং ডিআইএ ডিজি লেফটেন্যান্ট জেনারেল জিএভি রেড্ডির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। তারা দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি, প্রতিরক্ষা সহযোগিতার পরিধি ও মাত্রা বৃদ্ধি এবং পারস্পরিক স্বার্থের বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

এর আগে, গত ৮ এবং ৯ আগস্ট বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলটি বেঙ্গালুরুতে বিভিন্ন প্রতিরক্ষা ইন্ডাস্ট্রি পরিদর্শন করে। ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন বুধবার এক টুইটে জানায়, প্রতিনিধি দলটি দিল্লির উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে হিন্দুস্তান অ্যারোনটিক্স লিমিটেড, ভারত ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড, টাটা অ্যাডভান্সড সিস্টেমস লিমিটেড এবং বিগ ব্যাং বুম সলিউশনের সক্ষমতা পরিদর্শন করেছে।

গুরুগ্রামে ইন্ডিয়ান ওশান রিজিয়নের ইনফরমেশন ফিউশন সেন্টারও পরিদর্শন করার কথা রয়েছে ওয়াকের-উজ-জামানের। যা এই অঞ্চলের সামুদ্রিক নিরাপত্তা তথ্য শেয়ারিং হাব।

জেডআই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply