কৌশলগত কারণে বাড়াতে হয়েছে পেট্রোল ও অকটেনের দাম: বিপিসি চেয়ারম্যান

|

পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এ বি এম আজাদ।

সঞ্চয়পত্র বা এফডিআর ভেঙে জ্বালানি তেল আমদানির খরচ মেটাচ্ছে সরকার। এমনটা জানিয়ে পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন- বিপিসি বলছে, এখনো দুই মাসের আমদানি খরচ মেটানোর সক্ষমতা আছে সংস্থাটির। চেয়ারম্যান জানান, নতুন দামে মাসে ২০৫ কোটি টাকা লাভ হতে পারে সরকারের। মজুদ নিয়ে সঙ্কট নেই দাবি করে তিনি বলছেন, এখনও এক মাসের ডিজেল ও ১৮-১৯ দিনের অকটেন-পেট্রোল আছে দেশে।

এককভাবে সরকারের জ্বালানি তেল আমদানি করে থাকে পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন- বিপিসি। এক লাফে প্রায় ৫০ শতাংশ দাম বাড়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে সংস্থাটি।

বুধবার (১০ আগস্ট) বিকেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান জানালেন, ২০১৪ থেকে সাত বছরে প্রায় ৪৩ হাজার কোটি টাকা মুনাফা করেছে সংস্থাটি। এরমধ্যে সরকারের বকেয়া, লভ্যাংশসহ প্রায় ২৩ হাজার কোটি টাকা ফেরত দিতে হয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়কে। এ বছরের শুরু থেকে আবারও বিশ্ব বাজারে তেলের দাম বাড়ায় আট হাজার কোটি টাকা লোকসান গুনতে হয়েছে তাদের। পাশাপাশি কর্পোরেশনের প্রকল্প বাস্তবায়নের ব্যয়ও এ মুনাফা থেকেই মেটানোর দাবি চেয়ারম্যানের।

লাভের কিছু অংশ প্রকল্পের নামে এফডিআর করা ছিল। রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের পর সেই জমানো টাকাতেও হাত দিতে হয়েছে বলে জানালেন বিপিসি প্রধান।

তিনি বলেন, এই এফডিআরগুলোকে ভেঙ্গে ভেঙ্গে এডিশনাল পেমেন্টগুলো আমরা নিশ্চিত করি। যেহেতু পণ্য ডেলিভারির ১৫-২০ দিনের মধ্যে আমাদের পেমেন্টগুলো নিশ্চিত করতে হয় নাহলে পরের কার্গো ওরা দিবে না। আল্টিমেটলি সাপ্লাই চেইন ঠিক রাখার জন্য এর কোনো বিকল্প আমাদের ছিল না।

এখন প্রতি লিটার অকটেন বেচে ২৫ টাকা লাভ করছে তারা। আর ডিজেলে এখনও ৬ টাকা ভর্তুকির কথা বলছে বিপিসি। প্রশ্ন আসে, এক লাফে এত দাম বাড়িয়ে কত টাকা মুনাফা করবে বিপিসি?

বিপিসি চেয়ারম্যান বললেন, ডিজেল এবং অকটেন যদি ওই পরিমাণই বিক্রি হয় ডলারের সরকারি হিসাব হলে প্রফিট থাকে মাসে ২০৫ কোটি টাকা। যদি জুলাই মাসে ওই দুইটা পণ্য আমি বিক্রি করি। যে কস্ট এখন আছে তা নিয়ে আমি যদি মার্কেট রেটে যাই তাহলে আমাদের লস হয় ৩৯ কোটি টাকার মতো।

জ্বালানি তেলের মজুদ ও কমপক্ষে দু’মাসের আমদানি ব্যয় নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই বলে দাবি করে বিপিসি চেয়ারম্যান বলেন, দেশে বর্তমানে ৩০ দিনের ডিজেল, ১৮ থেকে ১৯ দিনের অকটেন, ১৮ দিনের পেট্রোল এবং ৩২ দিনের জেট ফুয়েল মজুদ আছে।

এ সময় বিশ্ব বাজারে দাম কমার প্রবণতা অব্যাহত থাকলেও দেশেও সমন্বয়ের আশ্বাস দেন চেয়ারম্যান।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply