জ্বালানি তেলের বাড়তি দর উস্কে দিচ্ছে মূল্যস্ফীতি: সিপিডি

|

সিপিডির ব্রিফিং।

জ্বালানি তেলের বাড়তি মূল্য উস্কে দিচ্ছে মূল্যস্ফীতি। আর এতে অস্বস্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। এই তথ্য জানিয়ে সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন জ্বালানি তেলের দাম কমিয়ে ধাপে ধাপে বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন। সিপিডি বলছে, কৃষি, শিল্প ও পরিবহন খাতে বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

বুধবার (১০ আগস্ট) সিপিডির ব্রিফিংয়ে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন জানান, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র বা ভিয়েতনামের চেয়ে বাংলাদেশে ডিজেল-অকটেনের দাম বেশি। এতে সাধারণ মানুষ বিড়ম্বনায় পড়েছে। এর ফলে কৃষিতে বিরূপ প্রভাব পড়ছে; সেই সাথে বাড়ছে উৎপাদন খরচ। তিনি বলেন, মূল্যবৃদ্ধিটি এমন এক সময়ে আসলো যখন কিনা আমাদের অর্থনীতি অভ্যন্তরীণ এবং বহিঃস্থ বিভিন্ন কারণে চাপে আছে।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ইজাজ হোসেন জানান, অর্থনীতিতে সবচেয়ে খারাপ সময় পার করছে দেশ। কিন্তু এভাবে হঠাৎ করে দাম বাড়িয়ে ফেলায় নতুন ধরনের চাপ তৈরি করেছে। তিনি বলেন, সরকার কিন্তু ভীষণ সমস্যায় আছে। তার কারণ হিসেবে ডলারের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আপনারা জানেন। ডলারের অবমূল্যায়ন হয়েছে, হচ্ছে এবং সামনেও হতে পারে। কেউ জানে না, ডলারের এক্সচেঞ্জ রেট কোথায় গিয়ে থামবে।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী অভিযোগ করেন, সরকার নির্ধারিত পরিবহন ভাড়া অনেকে মানছে না। কোথাও কোথাও কিলোমিটার প্রতি ৩ থেকে ৭ টাকা ভাড়া নেয়া হচ্ছে। বিষয়টি সরকারের তদারকিতে আনা প্রয়োজন।

আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ কোনো দলকে সমর্থন করে না‌: মার্কিন রাষ্ট্রদূত

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply