মেক্সিকোয় পানিতে ডুবে ছেলের মৃত্যু, মালয়েশিয়ায় থাকা পরিবার বিপাকে

|

বাবা-মা এবং ছোট ভাইয়ের সঙ্গে মোহাম্মদ ফয়সাল মিয়া (বামে)। ছবি: সংগৃহীত

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:

কানাডার রিয়ারসন বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশি শিক্ষার্থী মোহাম্মদ ফয়সাল মিয়া (২২) মেক্সিকোতে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন দুই সপ্তাহ আগে। মেক্সিকোতে পানিতে ডুবে মারা যান ফয়সল। সোমবার (৮ আগস্ট) মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম ফ্রি মালয়েশিয়া টুডের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মরদেহ রাখা হয় মেক্সিকোর একটি হাসপাতালে। সেই হাসপাতালের ফি মেটাতে না পারায় তার মরদেহ নিতে পারছে না মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত তার পরিবার। মরদেহ বাংলাদেশে নিয়ে যাওয়ার মতো অর্থও নেই তাদের হাতে।

মালয়েশিয়ায় বড় হওয়া ফয়সাল কানাডার রিয়ারসন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। সম্প্রতি ছুটি কাটাতে ফয়সাল বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে যান মেক্সিকোর সমুদ্র সৈকতে। সাঁতার না জানায় সৈকতে ডুবে যাওয়ার পর লাইফগার্ড তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা নিশ্চিত করেন ফয়সাল মারা গেছেন। তার মরদেহ হাসপাতালেই রয়ে যায়। ফি পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত মরদেহ হস্তান্তর করতে রাজি হচ্ছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এর মধ্যে হাসপাতালের ফি ৫ হাজার মার্কিন ডলার এবং অ্যাম্বুলেন্স ফি ৭৫০ মার্কিন ডলার। এছাড়াও মরদেহ দাফনের জন্য বাংলাদেশে নিয়ে যেতে ১৬ হাজার মার্কিন ডলার দরকার হবে বলেও ফয়সালের পরিবারকে জানানো হয়েছে। অর্থ জোগাড় করতে না পেরে কি করবে ৪ সদস্যের পরিবার বুঝে উঠতে পারছে না।

ফয়সালের চাচাতো ভাই নুর আল মাহদি জানিয়েছেন, ফয়সালের বাবা একজন ভূমি জরিপকারী এবং তাদের পরিবার ১৯৯৪ সাল থেকে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছে। ফয়সালের মরদেহ দেশে পাঠানোর জন্য ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে তহবিল সংগ্রহ করার চেষ্টা করছেন তার বন্ধুরা।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply