ভীতি তৈরির জন্যই র‌্যাব তুলে নিয়ে গিয়েছিল

|

ভীতি তৈরির জন্যই র‌্যাব অন্যায়ভাবে তুলে নিয়ে গিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন।

ইমরান এইচ সরকার বলেন, ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে র‍্যাবের কর্মকর্তারা চলমান অভিযান নিয়ে আলোচনা করেছেন। বুধবার শাহবাগে বিচারবহির্ভূত হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত সমাবেশ সর্ম্পকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করা হয়েছিল দাবি করেন ইমরান এইচ সরকার।

ইমরান জানান, তাকে কালো কাপড়ে চোখমুখ বেঁধে হাতকড়া পরিয়ে তুলে নেওয়া হয়েছিল। পরে জিজ্ঞাসাবাদ করে রাতেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

তার দাবি, কালো কাপড় দিয়ে চোখ–মুখ বেঁধে হাতকড়া পড়িয়ে তাকে র‍্যাব-৩–এর কার্যালয়ে নেওয়া হয়। এরপর র‍্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এলে কালো কাপড় ও হাতকড়া খুলে দেওয়া হয়। র‍্যাবের কর্মকর্তারা তার সাথে আলোচনা করতে চান। জানতে চান, কী জন্য আন্দোলন করছেন? এর উদ্দেশ্য কী? একপর্যায়ে র‍্যাব কর্মকর্তারা মাদকবিরোধী অভিযানের যৌক্তিকতা তুলে ধরেন।

ইমরান জানান, তিনি র‍্যাবের কর্মকর্তাদের বলেছেন, মাদকের বিরুদ্ধে যেমন তিনি সোচ্চার, তেমনি মাদকবিরোধী অভিযানের নামে যে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ঘটছে, তার বিরুদ্ধেও সোচ্চার।

তিনি জানান, শাহবাগ থানা পুলিশ এবং ঢাকা মহানগর পুলিশকে (ডিএমপি) লিখিতভাবে অবহিত করেই সমাবেশের আয়োজন করেছিলেন। তাই অনুমতি নেওয়া হয়নি বলে যে দাবি করা হয়েছে, তা সঠিক নয়। অনুমতি নেওয়া হয়েছে কি না, এটা দেখার দায়িত্ব র‍্যাবের না, এটা পুলিশের।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply