বাবা-ভাইয়ের পর মারা গেলেন ব্রিটিশ নাগরিক সামিরা, এখনও উদ্ধার হয়নি রহস্য

|

লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় সামিরা।

যুক্তরাজ্য থেকে বাংলাদেশে এসে রহস্যজনক মৃত্যু হওয়া ব্রিটিশ নাগরিক রফিকুল ও তার ছেলে মাহিকুলের পর মারা গেছেন মেয়ে সামিরাও। শুক্রবার (৫ আগস্ট) মধ্যরাত ১টা ৩০ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

২৬ জুলাই সিলেটের ওসমানীনগরের একটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধারের পর গত ১১ দিন ধরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস যন্ত্রের মাধ্যমে সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়েছিলো সামিরাকে। ২৮ জুলাই ডাক্তাররা জানান, সামিরার কিডনি ও লিভার কাজ করছে না। এরপর থেকেই তার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুলাই তাজপুরের ভাড়া বাসা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয় একই পরিবারের ৫ ব্রিটিশ নাগরিককে। এর মধ্যে রফিকুল ও তার ছেলে মাহীকুলকে হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তাররা মৃত ঘোষণা করেন। তবে রফিকুলের স্ত্রী হুসনে আরা, আরেক ছেলে সাদিকুল ও মেয়ে সামিরার অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হুসনে আরা ও সাদিকুল সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরলেও একবারের জন্যও জ্ঞান ফেরেনি সামিরার। তিনি হাসপাতালে ভেন্টিলেশনের সাপোর্টে ছিলেন।

এদিকে, এখনও পর্যন্ত এই রহস্যজনক মৃত্যুর কোনো কিনারা হয়নি। পুলিশ সর্বশেষ জানিয়েছে, খাদ্যে বিষক্রিয়া, বাইরে থেকে স্প্রে এবং পোর্টেবল জেনারেটর থেকে সৃষ্ট কার্বন মনোক্সাইড ধোয়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তবে, চট্রগ্রাম থেকে ভিসেরা রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে মূল রহস্য।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply