প্রক্সির মাধ্যমে রাবির মেধা তালিকায় প্রথম হওয়া তানভীরের ফলাফল বাতিল

|

ছবি: সংগৃহীত।

রাজশাহী ব্যুরো:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্সি পরীক্ষায় আটক হয়েছিলেন বায়েজিদ খান। তিনি যে ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থীর হয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন সেই তানভীর আহাম্মেদকে তাৎক্ষণিকভাবে পরীক্ষা থেকে বহিষ্কার করা হয়নি। ফলে ‘এ’ ইউনিটের ফলাফলে মেধা তালিকায় প্রথম হন তানভীর। তবে বিতর্কের মুখে এবার সেই তানভীর আহমেদের ফলাফল বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) রাতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আনুষ্ঠানিকভাবে ‘এ’ ইউনিটের ফলাফল ঘোষণা করেন। ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষায় ৯২.৭৫ পেয়ে মেধা তালিকার প্রথম স্থান দখল করেছেন তানভীর আহাম্মেদ। বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে বুধবার (৩ আগস্ট) তানভীরের ফলাফল বাতিল ঘোষণা করা হয়।

এর আগে, গত ২৬ জুলাই ‘এ’ ইউনিটের ২য় শিফটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় তানভীর আহাম্মেদের বদলে পরীক্ষায় অংশ নেয় বায়েজিদ খান। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বায়েজিদকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

জিজ্ঞাসাবাদে বায়েজিদ সিন্ডিকেট প্রধান হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুশফিক তাওহীদ তন্ময়ের নাম বলেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করে।

এদিকে, ঐ একই বিভাগের পরীক্ষায় আরও দুই শিক্ষার্থীর হয়ে পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে আসা ২ জনকে আটক করে প্রশাসন। তাদের মধ্যে এখলাসুর রহমানকে ফলাফলে বহিষ্কার দেখানো হলেও আরেক শিক্ষার্থী ইসরাত জাহানের খাতা বাতিল করা হয়নি। তিনি ৬৯২১তম হয়েছেন। এনিয়েও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আলোচনায় বসেছে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply