ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ঘিরে চবিতে উত্তেজনা, বন্ধ ক্লাস-পরীক্ষা

|

বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা।

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) মূল ফটকে তালা দিয়ে বিক্ষোভ করছে পদবঞ্চিতরা। সোমবার (১ আগস্ট) ভোর থেকে ক্যাম্পাসের মূল ফটকের সামনে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছে তারা। উত্তেজনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্ধ রয়েছে সকল প্রকার ক্লাস-পরীক্ষা।

এর আগে, রোববার (৩১ জুলাই) গভীর রাতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার খবর ক্যাম্পাসে পৌঁছানোর পর থেকেই মূল ফটক বন্ধ করে দেয় বিক্ষোভকারীরা। সোমবার সকালে নগরীর ঝাউতলা স্টেশন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেনের চালক এবং ট্রেন পরিচালককে ধরে নিয়ে যায় অবরোধকারীরা। ফলে ক্যাম্পাসগামী ট্রেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশে ছেড়ে না যাওয়ায় ক্যাম্পাসে পৌঁছাতে পারেননি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৫০ শতাংশ শিক্ষার্থী।

এদিকে, ঘোষিত কমিটিতে পদ বাণিজ্য এবং অছাত্রদের রাখার অভিযোগ করেছেন পদবঞ্চিতরা। ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই রেজাউল হককে সভাপতি ও ইকবাল হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। তিন বছর পর এই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হলো। তবে বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ টাকার বিনিময়ে কমিটিতে যোগ্য প্রার্থীদের বদলে নতুন ছাত্রদের পদ দেয়া হয়েছে। কমিটিতে উঁচু পর্যায়ের পদ পেয়েছে ১৯-২০ সেশনে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরাও।

বিক্ষোভকারীরা বলছেন, কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ না দিলে এবং পদবঞ্চিতদের কমিটিতে সন্তোষজনক পদ না দেয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলতে থাকবে। বিক্ষোভের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ আছে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply