ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুকে ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতার; তীব্র প্রতিক্রিয়া বিজেপির

|

ছবি: সংগৃহীত

ভারতের লোকসভায় নতুন প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মুকে ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বলে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে উত্তাল দেশটির জাতীয় রাজনীতি। সূত্র: দ্য হিন্দু।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) এ ঘটনার জেরে লোকসভায় হট্টগোল পর্যন্ত বেঁধে যায়। তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ জানান বিজেপির মন্ত্রী ও বিধায়করা। কংগ্রসেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান স্মৃতি ইরানি, নির্মলা সীতারমনরা।

একই দাবিতে লোকসভার বাইরেও বিক্ষোভ করেন বিজেপির বিধায়করা। তাদের অভিযোগ, রাষ্ট্রপতিকে ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বলায় দেশের সাংবিধানিক পদকে অবমাননা করা হয়েছে। এমনকি ভারতের মহিলা এবং আদিবাসীদের অবজ্ঞা করা হয়েছে বলে লোকসভায় দাবি করেন স্মৃতি ইরানি। বলেন, কংগ্রেসের সাংগঠনিক প্রধান সোনিয়া গান্ধীও একজন মহিলা। তা সত্ত্বেও প্রেসিডেন্টকে ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বলে অভিহিত করাটা লজ্জাজনক।

অবশ্য, এ ঘটনায় পরবর্তীতে দুঃখও প্রকাশ করেছেন অধীর। ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমে জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গে দেখা করে ব্যক্তিগতভাবে ক্ষমা চাইবেন। বিজেপি সাংসদরা সোনিয়া গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে যে দাবি তুলেছেন সে প্রেক্ষিতে তিনি বলেছেন, এর মধ্যে অযথা সোনিয়া গান্ধীকে টেনে আনবেন না। ভুলটা আমি করেছি৷

আরও পড়ুন: ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত উ.কোরিয়া, প্রয়োজনে পারমাণবিক বোমার ব্যবহার’

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply