গোয়ালঘরে আটকে রাখা সেই মা’কে হাসপাতালে ভর্তি

|

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় বড়খাপন ইউনিয়নের দুর্লভপুর গ্রামে ছেলে সবুজ মিয়া ও তার স্ত্রী সাহেদা আক্তারের দ্বারা নির্যাতনের শিকার বৃদ্ধা ফসর বানুকে (৮৫) গোয়ালঘর থেকে উদ্ধার করে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুজ্জামানের হস্তক্ষেপে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার দুর্লভপুর গ্রামের মৃত আমজাদ আলীর ছেলে সবুজ মিয়াকে জমি লিখে না দেয়ায় নিজের গর্ভধারিণী মা ফসর বানুকে গোয়ালঘরে আটকে রেখে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। কলমাকান্দায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা এ ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুজ্জামানকে অবহিত করেন। পরে ইউএনও সোমবার রাতে বৃদ্ধা ফসর বানুকে ছেলের নির্যাতনের কবল থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ফসর বানু সেখানে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শিয়াব উদ্দিন খাঁন বলেন, আমরা সার্বক্ষণিক ওই বৃদ্ধার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি এবং রবি কল্যাণ সমিতি থেকে ফসর বানুর চিকিৎসার জন্য সব প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুজ্জামান বলেন, বৃদ্ধা মাকে উদ্ধার করে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বুধবার অভিযুক্ত সবুজকে উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ে হাজির হয়ে এ ঘটনার ব্যাখ্যা প্রদানের জন্য নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। অভিযোগের সত্যতা পেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।









Leave a reply