ফ্রান্সের সেই হিজাবী তরুণীকে ব্যঙ্গ করে শার্লি হেবদোর বর্ণবাদী কার্টুন

|

শুধু হিজাব পরার কারণে মরিয়ম পুজেতু নামের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক তরুণীকে নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাপক আলোচনা! অন্যান্য ছাত্রনেতা/নেত্রীদের মতো তিনিও দেশটিতে ছাত্র আন্দোলনে আছেন। অন্যদের নিয়ে তেমন আলোচ নেই।

কিন্তু মরিয়মকে নিয়ে সরব ফ্রান্সে মন্ত্রী-এমপিরা। তাদের কথা হলো, ছাত্র আন্দোলন বিষয়ে একটি টিভি ডকুমেন্টারিতে দেয়া সাক্ষাৎকারে মরিয়মকে কেন হিজাব পরেই কথা বলতে হবে! এর মাধ্যমে নাকি তিনি ফ্রান্সে ধর্মীয় উম্মাদনা তৈরি করেছেন।

আজব এসব অভিযোগ করেছেন খোদ দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরার্ড কলোম্ব। সর্বশেষ মরিয়মকে আক্রমণে এগিয়ে এলো ফ্রান্সে বিতর্কিত ও ইসলামবিদ্বেষী পত্রিকা শার্লি হেবদো। ১৯ বছর বয়সী তরুণীকে ব্যঙ্গ করে ‘বানর’ হিসেবে উপস্থাপন করে একটি কার্টুন প্রকাশ করেছে পত্রিকাটি।

কোলাজ ক্যাপশন আকারে লেখা হয়েছে ‘তারা আমাকে ফ্রেঞ্চ ন্যাশনাল ছাত্র ইউনিয়নের প্রধান হিসেবে বাছাই করেছে।’

কার্টুনটি নিয়ে টুইটারে সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। এটিকে বর্ণবাদী হিসেবেই দেখছেন বেশিরভাগ মানুষ।

এদিকে এক সাক্ষাৎকারে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন মারিয়াম। তিনি বলেন, হিজাবের সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই। এটা আমার ব্যক্তিগত বিশ্বাসের ব্যাপার। এর আগে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমান্যুয়েল ম্যাখোঁর প্রস্তাবিত এক শিক্ষা সংস্কার পরিকল্পনার প্রতিবাদে একটি টিভি অনুষ্ঠানে হিজাব পরে অংশ নেন মারিয়াম।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০০৬ সালে হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর কার্টুন ছেপে বিতর্ক সৃষ্টি করে ফরাসি সাময়িকী শার্লি হেবদো। প্রচ্ছদে ছাপানো ওই কার্টুনটি এঁকেছিলেন লুজ নামের এক কার্টুনিস্ট। ২০১২ সালে মুহাম্মদ (স.)-কে নিয়ে আবারো সিরিজ কার্টুন ছাপতে শুরু করে শার্লি হেবদো। এসব ঘটনার প্রতিবাদে ২০১৫ সালে সাময়িকীটির অফিসে হামলা চালায় সশস্ত্র জিহাদিরা।









Leave a reply