বাংলাদেশি অভিবাসী শ্রমিকদের নিয়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর করা মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক

|

প্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকোব।

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:

অভিবাসী শ্রমিকরা মালয়েশিয়ানদের খাদ্য ভর্তুকি উপভোগ করছেন, এমন মন্তব্যের জেরে সমালোচনার মুখে পড়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকব। তার এই মন্তব্যের সমালোচনা করে সোমবার (৪ জুলাই) একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে সমালোচকরা। সেখানে বলা হয়েছে, অভিবাসী কর্মীরা মালয়েশিয়ায় বিনামূল্যে বসবাস করছে না। বিলিয়ন বিলিয়ন রিঙ্গিত লেভি এবং ট্যাক্সে অভিবাসী শ্রমিকরা অবদান রাখছে।

এ বিষয়ে সেলাঙ্গরের পারসাতুয়ান সাহাবাত ওয়ানিতার (মহিলা সমিতি) নির্বাহী পরিচালক জেভিয়ার বলেছেন, মালয়েশিয়ায় অভিবাসীদের কাজ করার জন্য অভিবাসন বিভাগকে শুল্ক দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর এমন বিবৃতি অন্যায্য। ২০২২ সালের বাজেটের প্রাক্কলন অনুসারে, অভিবাসী শ্রমিকদের কাছ থেকে শুল্ক সংগ্রহ এই বছর প্রায় ১.৭ বিলিয়ন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে উল্লেখ করে জেভিয়ার বছেন, প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই আমাদের জানাতে হবে যে সমস্ত শুল্ক কোথায় যায়। তাদের থেকে কারা উপকৃত হয়েছে? আমি নিশ্চিত যে এটি অভিবাসী নয়।

এর আগে গত ২ জুলাই একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার সময় দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি অভিবাসী শ্রমিক এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীরা মালয়েশিয়ার করদাতাদের অর্থায়নে খাদ্য ভর্তুকি থেকে উপকৃত হচ্ছেন। এরপর থেকেই তার এমন বক্তব্য ঘিরে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে দেশটির মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক জেভিয়ার বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভুলে গিয়েছেন কঠোর পরিস্থিতিতে কম বেতনের জন্য মালয়েশিয়ানরা যে কাজগুলো করে না, অভিবাসী শ্রমিকরা সেগুলো করে অর্থনীতিকে সচল রেখেছে। একইভাবে সমালোচনা করে নর্থ-সাউথ ইনিশিয়েটিভের আদ্রিয়ান পেরেইরা বলেন, অভিবাসী শ্রমিকরা এক অর্থে মালয়েশিয়ানদের বিক্রয় কর, অভিবাসী শ্রমিক নিয়োগের খরচ এবং ভাড়া ও ইউটিলিটি বিলের মাধ্যমে ভর্তুকি দিচ্ছে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply