মহারাষ্ট্রে মেয়ের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে বাবা-মায়ের আত্মহত্যা

|

ছবি: সংগৃহীত

চোখের সামনে গলায় খাবার আটকে ১৮ মাস বয়সী মেয়ের মৃত্যু সইতে না পেরে গাছের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন এক দম্পতি। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ভারতের মহারাষ্ট্রের সাংলি জেলার অটপড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, গলায় খাবার আটকে চিকিৎসাধাীন অবস্থায় রোববার (২৬ জুন) মারা যায় ওই দম্পতির ১৮ মাস বয়সী মেয়ে। এই শোক কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না তারা, এ কারণেই আত্মহত্যা করেন।

প্রতিবেশীরা জানান, দুপুরে খাওয়ার সময় আচমকাই গলায় খাবার আটকে যায় তাদের শিশুকন্যার। বাবা-মা অনেক চেষ্টা করেন খাবার বের করতে। তবে সফল হননি। এরপর হাসপাতালে মৃত্যু হয় শিশুটির।

তারা জানান, সন্তানের শেষকৃত্য করা হলেও মন থেকে মেয়ের চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছিলেন না স্বামী-স্ত্রী। দুর্ঘটনার পর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তারা। বাড়ির মধ্যে নিজেদের বন্দি করে রেখেছিলেন। কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন সবার সাথে।

পুলিশ জানিয়েছে, সকালে গ্রামবাসী দেখে, একটি মন্দিরের পাশের গাছে একই দড়ির ফাঁস থেকে দু’টি দেহ ঝুলছে। করণের পকেট থেকে একটি সুইসাইড নোটও পাওয়া যায়। তাতে লেখা ছিল, তারা চললেন তাদের মেয়ের কাছে।

/এনএএস





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply