আখাউড়া দিয়ে প্রথমবারের মতো ভুট্টা আমদানি করছে বাংলাদেশ

|

আখাউড়া প্রতিনিধি:

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য শুরু হওয়ার ২৮ বছর পর প্রথমবারের মতো ভারত থেকে ভুট্টা আমদানি শুরু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে ভুট্টাবোঝাই ১টি ভারতীয় ট্রাক প্রথমবারের মতো ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা বন্দর হয়ে আখাউড়া বন্দরে প্রবেশের মধ্য দিয়ে এ কার্যক্রম শুরু হয়। পরিক্ষামূলকভাবে প্রথমবার ১৯ মেট্রিক টন ভুট্টা ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে। প্রতি টন ভুট্টা ৩০২ মার্কিন ডলার মূল্যে ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে।

আগামী রোববার (৩ জুলাই) ভুট্টাভর্তি ভারতীয় ট্রাক থেকে বাংলাদেশি ট্রাকে খালাস করে গন্তব্যে নিয়ে যাওয়া হবে। আখাউড়া কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বলছে, আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভুট্টাসহ অনুমোদিত অন্যান্য পণ্য আমদানি বাণিজ্য বাড়লে সরকারের রাজস্ব আয়ও বাড়বে।

ভুট্টা আমদানিতে ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) প্রতিষ্ঠান আখাউড়া স্থলবন্দরের হাসান এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. হাসিবুল হাসান যমুনা নিউজকে বলেন, আখাউড়া বন্দর চালু হওয়ার দীর্ঘ ২৮ বছর পর এই প্রথমবারের মতো আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে ভুট্টা আমদানি করা হয়েছে। ভুট্টা আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান হবিগঞ্জের রাফান এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী হিরন আহমেদ। তিনি দেশের চাহিদার কথা মাথায় রেখে পরিক্ষামূলকভাবে প্রতি মেট্রিক টন ৩০২ মার্কিন ডলার মূল্যে ১৯ মেট্রিক টন ভুট্টা বাংলাদেশে আমদানি করেন।

ভারতের উত্তর প্রদেশ থেকে মালবাহী ট্রেনে করে ওই ভুট্টা ত্রিপুরার আগরতলা রেলওয়ে স্টেশনে আনা হয়। পরে ট্রেন থেকে আনলোড করে ট্রাকে আগরতলা বন্দর হয়ে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভুট্টাভর্তি ভারতীয় ট্রাকটি বাংলাদেশের আখাউড়া বন্দরে আনা হয়। ভালো চাহিদা পাওয়া গেলে পরবর্তীকালে ভুট্টা আমদানি বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ওই ব্যবসায়ী।

আখাউড়া স্থলবন্দর সহকারী পরিচালক (ট্রাফিক) আতিকুল ইসলাম যমুনাকে জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে ১৯ মেট্রিক টন ভুট্টা ভর্তি ১টি ভারতীয় ট্রাক আখাউড়া বন্দরে প্রবেশ করে। রোববার সকালে বাংলাদেশি ট্রাকে লোড করে গন্তব্যে নিয়ে যাবে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান।

প্রসঙ্গত, পূর্ব-উত্তর ভারতের সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর সীমান্ত পথে আন্তঃবাণিজ্য সম্প্রসারণে ১৯৯৪ সালে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য চালু হয়।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply