‘বেলুনে চেপে’ করোনা ঢুকেছে, দাবি উত্তর কোরিয়ার

|

ছবি: সংগৃহীত

উত্তর কোরিয়ায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে তাদের সীমান্তের কাছে এসে পড়া ‘অজানা বস্তু’ দেশটির নাগরিকরা স্পর্শ করার পরেই। পিয়ংইয়ংয়ের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদ মাধ্যমে এমন দাবি করা হয়েছে। খবর বিবিসির।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে সীমান্ত দিয়ে উড়ে আসা বস্তু সম্পর্কে নাগরিকদের সজাগ থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে। বহু বছর ধরেই দক্ষিণ কোরিয়ার মানবাধিকার কর্মীরা বেলুনে করে সীমান্তের অপর পারে পুস্তিকা, প্রচারপত্র এবং মানবিক সাহায্য পাঠিয়ে আসছে। তবে উত্তর কোরিয়ার এই দাবির প্রতিক্রিয়ায় সোল বলেছে, এইভাবে করোনাভাইরাসের সীমান্ত পার হয়ে সেখানে যাওয়া ‘একেবারেই অসম্ভব’।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, সরকারি তদন্তে বের হয়ে এসেছে যে, এই ভাইরাস যখন ছড়াতে শুরু করে তখন প্রথম দিকে দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে সীমান্ত এলাকায় অজ্ঞাত কিছু বস্তুর সংস্পর্শে আসার পর দুই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হন।

গত এপ্রিলের শেষ থেকে উত্তর কোরিয়া ৪৭ লাখ মানুষের ‘জ্বর’এ আক্রান্ত হওয়ার একটা বিশাল ঢেউ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে এরা সবাই কোভিড আক্রান্ত, যার পরীক্ষা করা হয়নি।

বিবিসি আরও জানায়, আড়াই কোটি জনসংখ্যার এই দেশে টিকাদান কর্মসূচির অভাব রয়েছে, দেশটির স্বাস্থ্য সেবা ব্যবস্থাও অনুন্নত। যদিও সাম্প্রতিক কয়েক সপ্তাহে সংবাদ মাধ্যমের খবর থেকে জানা যাচ্ছে যে চীন তাদের তৈরি টিকা উত্তর কোরিয়াকে দেয়ার যে প্রস্তাব করেছে পিয়ংইয়ং তা গ্রহণ করেছে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply