প্রিন্সেস ডায়ানা স্মরণে

|

প্রিন্সেস ডায়ানা ফ্রান্সিস স্পেনসার (১৯৬১-১৯৯৭)

ডায়ানা, প্রিন্সেস অব ওয়েলস। ১৯৬১ সালের আজকের দিনে জন্মগ্রহণ করা ডায়ানা ফ্রান্সিস স্পেনসার শুধুমাত্র রাজবধূ হিসেবে নয়, বরং ব্যক্তি হিসেবে তার স্বভাব, আচরণ, হাসি, মানুষের প্রতি ভালোবাসা, গ্ল্যামার, স্টাইল, রূপ সব মিলিয়ে তিনি ছিলেন এক বিশ্বতারকা। মৃত্যুর পরও সেই রেশ তো কমেইনি বরং আজও তিনি স্টাইল আইকন হয়ে আছেন কোটি হৃদয়।

পোশাক থেকে আচরণ, সবকিছুতেই নিজের রাজকীয় রুচির ছাপ রেখেছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা। ফলে সাধারণ মানুষের মাঝে দারুণভাবে গ্রহণযোগ্য আর বৈশ্বিক স্টাইল আইকনে পরিণত হতে তার খুব বেশি সময় লাগেনি।

ছোট ছাঁটের কিছুটা পেজবয় আবার কিছুটা বব ধাঁচের চুলের জন্য ডায়ানার হেয়ার স্টাইল ছিল বিশ্ববিখ্যাত। গত ৫০ বছরের ‘মোস্ট আইকনিক হেয়ারস্টাইল’ হিসেবেও স্বীকৃত প্রিন্সেস ডায়ানার চুলের সাজ। ‘ডায়ানা কাট’ বলে খ্যাত তার হেয়ার স্টাইল নারী, বিশেষত তরুণীদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়ও। তার খ্যাতি এতোদূর পৌঁছেছে যে, তার নামে লাল সাদা শেডের একটি বিশেষ গোলাপ ফুলের জাতের নামকরণও করা হয়েছে।

শুধু হেয়ার স্টাইলই নয়, তার পোশাক সবসময়ই ছিল হালের ফ্যাশন। কোনো ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়াই বিশ্বব্যাপী ডায়ানাকে অনুসরণ করেছেন কোটি কোটি তরুণী। এ নিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন তারই পুত্রবধু কেট মিডলটন। ১৯৮৭ সালে প্রিন্স চার্লসের পোলো ম্যানেজারকে পুরস্কার দেয়ার সময় ডায়ানা যে ভিকটর অ্যাডালস্টিনের পোশাকটি পরেছিলেন, ২০১৩ সালে লন্ডনে ওয়ার্নার ব্রসের স্টুডিও দেখতে প্রায় একই রকম পোশাক পরেছিলেন কেট। ২৫ বছর পরও ভীষণ ইনফ্লুয়েন্সিয়াল প্রিন্সেস ডায়ানা।

ডায়না বেঁচে থাকলে আজ নিজের ৬১তম জন্মদিন পালন করতেন। ১৯৯৭ সালের ৩১ আগস্ট এক সড়ক দুর্ঘটনায় না ফেরার দেশে চলে যান ডায়ানা। তার মৃত্যুতে এখনও শোকার্ত হন বিশ্বব্যাপী ডায়ানাভক্তরা। মৃত্যুর পরও তার জনপ্রিয়তা কমেনি বিন্দু পরিমাণও বরং আন্তর্জাতিক স্টাইল আইকনদের তালিকায় চিরকাল থাকবেন অমর হয়ে।

শুভ জন্মদিন ডায়ানা দ্য প্রিন্সেস অব ওয়েলস।

/এসএইচ

         





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply