নাটোরে বন্ধুকে হত্যা, যুবকের যাবজ্জীবন

|

সিনিয়র করেসপনডেন্ট, নাটোর

নাটোরের লালপুরে ভটভটি চালক জুয়েল হত্যা মামলায় মাসুদ রানা নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও দুইজনকে খালাস দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুরে একটার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফ উদ্দিন এ রায় প্রদান করেন।

নাটোর জজকোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম জানান, ২০১৬ সালের ২৫ জুন দুপুরে রাজশাহীর মিরগঞ্জ ভানুকর পাড়ার নিজ বাড়ি থেকে ভটভটি চালক জুয়েল হোসেনকে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায় তার বন্ধু মাসুদ রানা। পরে রাত ১০টার দিকে জুয়েল ফিরে না এলে পরিবারের লোকজন জুয়েল ও মাসুদকে খোঁজ করেন। এরপর রাতে মাসুদের দুই ভাই জুয়েলের বাড়িতে গিয়ে সংবাদ দেয় লালপুরের মঞ্জিলপুকুর কলেজের পাশে সড়কে ডাকাতের হামলায় জুয়েল মারা গেছে। খবর পেয়ে জুয়েলের বাবাসহ আরও কয়েকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে মঞ্জিলপুকুর কলেজের পাশে ফাঁকা জমিতে জুয়েলের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে।

পরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় নিহত জুয়েলের বাবা জহুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মাসুদ রানা ও তার দুই ভাই আয়নাল ও মুকুলকে অভিযুক্ত করে ঘটনার পরদিন লালপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পিপি আরও জানান, এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করে। দীর্ঘ ৬ বছর মামলার স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে মামলার অভিযুক্ত মাসুদ রানাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন। এ সময় অপর দুই অভিযুক্ত আয়নাল ও মুকুলের বিরুদ্ধে কোনো স্বাক্ষ্য প্রমান না পাওয়ায় তাদের খালাস প্রদান করা হয়।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply