জ্বালানি সংকট সামাল দিতে পোল্যান্ডে গাছ কাটার অনুমোদন

|

জ্বালানি সংকট সামাল দিতে এবার নাগরিকদের বনের গাছ কাটার অনুমোদন দেয়া হলো পোল্যান্ডে। রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে একদিকে বেড়েছে জ্বালানির দাম। অন্যদিকে রাশিয়া থেকে বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে গ্যাস সরবরাহ। ফলে আসন্ন শীত মৌসুমে বসতবাড়ি উষ্ণ রাখতে কাঠের কোনো বিকল্প নেই পোল্যান্ড কর্তৃপক্ষের কাছে।

মূলত, পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রেখেছে রাশিয়া। এরই ধারাবাহিকতায় পোল্যান্ডেও কয়েক দফায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেয় মস্কো।

পোল্যান্ডের বন কর্মকর্তা জিমন তাতারজিক বলেন, এ বছর কয়লা ও গ্যাসের সংকট রয়েছে। তাই জ্বালানির চাহিদার জন্য কাঠের দিকে ঝুঁকেছি আমরা। বিদ্যুৎ কিংবা গ্যাসের সংকট হলে কাঠ ছাড়া অন্য কোনো উপায় নেই।

২০১৯ সালে পোল্যান্ডে ৭২০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস ব্যবহৃত হয়। এর ৮০ শতাংশই আমদানি করা হয়। যার বেশিরভাগই আসে রাশিয়া থেকে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কঠিন হলেও জ্বালানির জন্য কাঠের কোনো বিকল্প নেই এই মুহূর্তে।

দেশটির আর্থার জ্যাকি নামের আরেক বন কর্মকর্তা বলেন, শীতের মৌসুমে ঘর গরম রাখার কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু গ্যাস কিংবা বিদ্যুতের সংকট হলে এটা সম্ভব নয়। তাই গাছ কাটার অনুমতি দেয়া হয়েছে। রাজ্যের বনাঞ্চল থেকে এসব কাঠ সংগ্রহ করবেন স্থানীয়রা।

এসব কাঠ পরিবহন করাটা আমাদের জন্য সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং। তিন ঘণ্টায় যতটুকু কাঠ কাটা যায়, সেটা পরিবহন করতে ৮ ঘণ্টা লাগে।

রুশ জ্বালানি প্রতিষ্ঠান গাজপ্রমের সাথে পোল্যান্ডের বছরে ১০ দশমিক ২ বিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস সরবরাহের চুক্তি আছে। এই চুক্তির মাধ্যমে দেশটির গ্যাসের চাহিদার ৫০ শতাংশ মেটানো হতো।

/এমএন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply