স্ত্রীদের সাথে ঝগড়া, ক্ষোভে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ব্যবসায়ীর

|

মেহেরপুর প্রতিনিধি :

দুই স্ত্রীর সাথে ঝগড়ায় ক্ষোভে নিজের মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন গোলাম হোসেন (৩৫) নামে এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রি। এসময় নিজের একটি দোকানঘরও ভাঙচুর করেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার নওপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। গোলাম হোসেন নবীনপুর গ্রামের মৃত মজিবর রহমানের ছেলে। 

বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, বেশ কয়েকদিন গোলাম হোসেন বিমর্ষ অবস্থায় দোকানে আসেন। ঠিকঠাক মতো কারও সাথে কথাও বলেন না। অনেকে বিষন্নতা নিয়ে প্রশ্ন করলে পারিবারিকভাবে অশান্তিতে আছেন বলে জানান। তার দুই স্ত্রী। প্রথম স্ত্রীর তিন ছেলে। তাকে রেখে বছর দেড়েক আগে ভাটপাড়া আবাসনে সোনালী খাতুন নামে আরেক নারীকে বিয়ে করেন তিনি।

নওপাড়া বাজারের ব্যবসায়ী একলাচ হোসেন জানান, দুপুরে দোকানে আসেন গোলাম হোসেন। বিকেলে দোকান ঘর ভাঙার শব্দ শুনে গিয়ে দেখি রাস্তায় মোটরসাইকেল ভাঙচুর করছেন। আমরা ঠেকাতে গেলে আমাদের ধাওয়া করেন। পরে নিজের ব্যবহৃত ১০০ সিসি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। 

গোলাম হোসেনের বড় ছেলে রাজন হোসেন বলেন, কয়েকদিন যাবত আমার দুই মাকে নিয়ে আমার বাবা খুব অশান্তিতে আছেন। কারো সাথে কথাও বলছেন না কয়েক দিন ধরে। যে মোটরসাইকেলটি আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে, সেটি আমি ও আমার বাবা দু’জনই ব্যবহার করতাম।

গোলাম হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রী সোনালী খাতুন বলেন, আমাকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিয়ে করেছে, তার একটিও রাখেনি গোলাম হোসেন।

পারিবারিক অশান্তি সহ্য করতে না পেরে এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে জানান গোলাম হোসেন।বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভপতি আবুল বাসার জানান, সংসারে যা কিছুই হোক না কেন মোটরসাইকেল পোড়ানো এবং দোকানঘর ভাঙচুর করা ঠিক হয়নি।

/এনএএস





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply