রংপুরে আবাদি জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণের অভিযোগ

|

স্টাফ করেসপনডেন্ট:

রংপুরের গঙ্গাচড়ার নোহালী ইউনিয়নের খাস জমির পরিবর্তে মালিকানাধীন চাষাবাদের জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্প তৈরির প্রতিবাদে মানবন্ধন ও  স্মারকলিপি দিয়েছে এলাকাবাসী।

সোমবার (২৭ জুন) বিকেলে রংপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে অংশ নেন নোহালী চরের কয়েকশ’ মানুষ। এসময় মানববন্ধনে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন হাজি মহিউদ্দিন, ভুট্টু মিয়া, লিটন মিয়া, সুরুজ আলী, আকবর আলী প্রমুখ।

এসময় বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যান, ওয়ার্ড সদস্য এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে খাস জমিতে না করে মালিকানাধীন চাষাবাদের জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। এসব জমির মালিকানার খাজনা আমরা দিয়ে আসছি।

আরও বলেন, কিন্তু সেই জমিতেই ইতিমধ্যেই বালু তোলার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এতে আমরা কয়েকশ’ এলাকাবাসী নিঃস্ব হওয়ার পথে। ওই জমিতে কাজ করে আমরা জীবিকা নির্বাহ করি। অবিলম্বে মালিকানাধীন জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণ কার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবি জানাচ্ছি। বিষয়টি জানিয়ে আমরা ইউএনও এর কাছে আবেদন করতে গেলে কৃষক মহিউদ্দিনের সাথে তিনি খারাপ ব্যবহার ও গালি দিয়েছেন। আমরা কোথাও কোনো প্রতিকার না পেয়ে ডিসির কাছে এর আগে লিখিত আবেদন করি। কিন্তু কোনো কাজ না হওয়ায় মানববন্ধন করছি।

পরে একই দাবিতে ডিসির কাছে স্মারকলিপি দেয় চরাঞ্চলের মানুষেরা। এ ব্যপোরে গঙ্গাচড়া ইউএনও এরশাদ আলী বলেন, ৮৬ একর জমি সেখানে খাস রয়েছে। তার মধ্যে ২ একর জমি নিয়ে আমি সেখানে মজিবুর বর্ষের আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজ করছি। কিন্তু কেন এটা তাদের সহ্য হচ্ছে না জানি না। 

/এনএএস





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply