‘বুড়ো খেলোয়াড়’ এর রেকর্ড ভাঙবে এবারের বিশ্বকাপে

|

ব্রাজিল বিশ্বকাপ ২০১৪-তে অতিরিক্ত গোলরক্ষক হয়ে কলম্বিয়া টিমে ছিলেন ৪৩ বর্ষীয় ফারিদ মনড্রাগন। তার আগে রজার মিলা ১৯৯৪-এ বিশ্বকাপের অঙ্গনে যখন ফিরে এলেন তখন তাঁর বয়স ছিল ৪২। ফলে ২০১৪-তে ৪৩ বছর ৩ দিন বয়সী মনড্রাগন গড়েন তৎকালীন নতুন রেকর্ডটি।

১৯৭১ সালের ২১ জুন খাতায়-কলমের জন্মতারিখ ফারিদের। কিন্তু ৪৩ বছরের হাড়কে বুড়ো বলা অনুচিত হলেও ফুটবল বিশ্বকাপের আসরে ফারিদের বয়সী কোনো গোলরক্ষকের অংশ নেওয়ার নজির ছিল না তার আগে। ১৯৯৪-এ তিনি ছিলেন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে। তার পরেরটাতেও তাঁকে রাখা হল তালিকায়। তারপর দীর্ঘ ১৬ বছর পর ২০১৪ সালের ফিফা বিশ্বকাপে আবার জাতীয় দলের হয়ে খেলতে গেলেন ব্রাজিলে।

শেষ বিশ্বকাপের দ্বিতীয়ার্ধে টিমের প্রয়োজনে মনড্রাগনকে গোলপোস্ট আগলাতেও হয়েছে। তবে সব ঠিক থাকলে বিশ্বকাপে ‘সবচেয়ে বুড়ো ফুটবলার’ হয়ে থাকার তাঁর এই রেকর্ড এবার ভাঙবে।

রাশিয়ায় মিশরের হয়ে খেলতে চলেছেন ইসাম-আল হাদারি। বয়স তার ৪৫। ভুমিকা রাখবেন গোল সামলানোয়। কোচ হেক্টর কুপার অনেক ভেবে-চিনতে দেখলেন পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। তাই স্কোয়াডে ইসাম আল হাদারির জয়জয়কার।









Leave a reply