টাঙ্গাইলে আ.লীগের পরাজিত প্রার্থীকে পিটিয়ে আহত

|

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, টাঙ্গাইল:

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে আটিয়া ইউনিয়নে গত ১৫ জুন সম্পন্ন হওয়া উপনির্বাচনে আ.লীগের পরাজিত প্রার্থী কৃষ্ণকান্ত দে সরকারকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে বিজয়ী প্রার্থীর লোকজনের বিরুদ্ধে।

রোববার (২৬ জুন) বিকেলে উপজেলার সিলিমপুর বেবিস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আহত কৃষ্ণকান্ত আটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

জানা যায়, গত ১৫ জুন সম্পন্ন হওয়া উপ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে কৃষ্ণকান্ত দে সরকার নির্বাচনে পরাজিত হন। এ নিয়ে কৃষ্ণকান্ত দে দলীয় কোন্দল ও শৃঙ্খলার অভাবকে দায়ী করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উস্কানিমূলক একাধিক স্ট্যাটাস দেন। এ নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। রোববার (২৬ জুন) বিকেলে কৃষ্ণকান্ত টাঙ্গাইল শহর থেকে ফেরার পথে দেলদুয়ার উপজেলার সিলিমপুর বেবিস্ট্যান্ডে পৌঁছালে তার ওপর হামলা করে।

কৃষ্ণকান্ত দে বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান কাঠের লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি পেটাতে শুরু করে। এ সময় হাবিবের সঙ্গে তার সহযোগী কামরুজ্জামান কফি, ওহাব ও আটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাহারুল ইসলাম মন্টুর ভাই কাওছারও মারপিট শুরু করে। চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। বর্তমানে কৃষ্ণকান্ত দে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এ ঘটনায় রাতেই মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন কৃষ্ণকান্ত দে।

এ বিষয়ে দেলদুয়ার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাছির উদ্দিন জানান, ঘটনার তদন্ত চলছে। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply