২৫ দিন আগে স্ত্রীর মৃত্যু, কার্নিশ থেকে পড়ে মৃত্যু হাসপাতালে ভর্তি স্বামীরও

|

গত ২৫ দিন আগেই মারা গিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণদাঁড়ি লেকটাউন এলাকার সুজিত আধিকারীর স্ত্রী। স্ত্রীর মৃত্যুর পর স্বাভাবিক জীবনযাপন করলেও বাড়িতে মাথা ঘুরে পড়ে গিয়ে মুখে আঘাত পাওয়ায় হাসপাতালে নেয়া হয় সুজিতকে। হাসপাতালে গিয়ে লিফটে আরও একবার পরে যান তিনি। পরে, চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গতকাল শনিবার (২৪ জুন) দুপুরে মল্লিকবাজারের ওই হাসপাতালের রুম থেকে জানালা দিয়ে বের হয়ে আটতলার কার্নিশে গিয়ে বসেন সুজিত। সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টা বসে ছিলেন তিনি। দমকল কর্মীরা চেষ্টা করেও উদ্ধার করতে পারেননি। অবশেষে হাত ফসকে নিচে পড়ে যান সুজিত। মুখে ও বুকে গুরুতর আঘাত পায় সে। সাথে সাথে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও সন্ধ্যা ছয়টার দিকে মারা যান তিনি।

পশ্চিমবঙ্গের সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, আগে গাড়ি চালাতেন সুজিত। পরে দেন লোহা-লক্কড়ের দোকান। ছোটবেলায় হারিয়েছেন বাবা-মা। বাড়িতে অভিভাবক বলতে ছিলেন এক পিসি। ৯ ও ২ বছরের দুইজন সন্তান আছে তার। দিন পঁচিশেক আগে স্ত্রীর মৃত্যু হওয়ায় নানা দুশ্চিন্তায় ছিলেন তিনি। হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে, সুজিতের ‘এপিলেপ্টিক ফিট’ ছিল।

এদিকে, অসুস্থ হওয়া সত্ত্বেও সুজিত হাসপাতালের কার্নিশে কীভাবে আসলো সেটি নিয়ে দেখা দিয়েছে বিতর্ক। তবে হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছেন, হাসপাতালের জানালার হাতলগুলো বড় বড় বোল্ট দিয়ে আটকানো ছিল। এগুলো খোলা সম্ভব না। তিনি হয়তো বোল্ট কেটে বাইরে গিয়েছেন। সম্ভবত ‘বেড কি’ দিয়ে ওই বোল্ট কাটা হতে পারে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply