পদ্মা সেতুর টোল অ্যাম্বুলেন্সে ফ্রি ও বিদেশিদের বাহনে দ্বিগুণ করার অনুরোধ ডা. জাফরুল্লাহর

|

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ডা. জাফরুল্লাহ।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ। সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে পদ্মা সেতুতে অ্যাম্বুলেন্সকে টোল ফ্রি ও বিদেশি যেকোনো ধরনের যানবাহনে দ্বিগুণ টোল আরোপের অনুরোধ জানান তিনি।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময়কালে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, খুবই আনন্দ লাগছে। ১৯৭১ সালে ৭ই মার্চের ছাড়া বাংলাদেশের কোনো ঐতিহাসিক মুহূর্তই আমি মিস করিনি, এটা আমার সৌভাগ্য। আজকের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে আমার জীবনের একটা আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ হয়েছে। আজ জাতি হিসেবে আমাদের জন্য এক ঐতিহাসিক দিন, আমি আমার প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করবো আরও মহানুভব হওয়ার জন্য। উনি ভালো কাজ অনেকগুলো করেছেন। ওনার সুস্বাস্থ্য কামনা করি। এখন আমাদেরকে নজর দিতে হবে প্রান্তিক মানুষের দিকে।

ডা. জাফরুল্লাহ আরও বলেন, আমাদের হিউমারটা কমে গেছে। আমার প্রধানমন্ত্রী হিউমার করে বলেছেন “চুবাবো-উঠাবো” এটাকে এতো সিরিয়াসলি না নিলেও হতো। উচিত ছিল ওনাকে (খালেদা জিয়া) দাওয়াতটা দেয়া, জামিনটা দেয়া উচিত ছিলো, ওনাদেরও আসাটা উচিত ছিল।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, আমি সৎ পরামর্শই দেই সরকারকে, কিন্তু তারা আমার পরামর্শ নেন না। নিলে তারা ভালই করতেন (হাসি)।

পদ্মা সেতু নিয়ে ড. জাফরুল্লাহ আরও বলেন, এই যে বিরাট কাজটা করেছে, আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য ও জীবনযাত্রাকে সহজ করেছে ঠিক, কিন্তু এখানে বড়লোকেদের লাভ হবে বেশি, গরীবদের কম। এজন্য আমার দুইটা অনুরোধ থাকবে। প্রথমত. অ্যাম্বুলেন্সকে টোল ফ্রি করে দিতে হবে। আর দ্বিতীয়ত, বিদেশিদের যেকোনো বাহন তা সে যেমন বাহনই হোক না কেনো তাদেরকে ডবল টোল দিতে হবে। কারণ এটা আমাদের কষ্টার্জিত পয়সায় আমাদের শ্রমে তৈরি হয়েছে।

পদ্মা সেতুর সাথে সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই ধন্যবাদ দিতে চাই। এছাড়া আমাদের শ্রমিক ভাই ও ইঞ্জিনিয়ার যাদের কঠোর পরিশ্রমে আমাদের পদ্মা সেতু নির্মিত হয়েছে তাদের সকলকে ধন্যবাদ।

/এসএইচ

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply