বন্যার প্রভাব বাজারে, সবজি থেকে মাংস সবই অগ্নিমূল্য

|

ছবি: সংগৃহীত।

সবজির বাজারে অস্বস্তি বাড়ছে। বন্যার প্রভাবে, বিভিন্ন ধরনের সবজির দর কেজিতে বেড়েছে অন্তত ১০ টাকা। পাইকারদের দাবি, বন্যার কারণে সরবরাহ কিছুটা কমেছে। মাছের দরও ঊর্ধ্বমুখী। কেজিতে বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যার কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভেসে গেছে মাছের ঘের। যার অনিবার্য প্রভাব পড়েছে দামে।

চড়ামূল্যের বাজারে পরিবারের খাবার যোগান দিতে হিমশিম অবস্থায় পড়েছেন অনেকে। আয়ের বড় অংশই শেষ হচ্ছে বাজারে। অস্বস্তি বাড়িয়েছে সবজির ঊর্ধ্বমুখী দর। সপ্তাহের ব্যবধানে বিভিন্ন ধরনের সবজির দাম বেড়েছে অন্তত ১০ টাকা। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যার প্রভাব পড়ছে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বরবটি ও কাকরোল বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৬০ টাকা। পটল ৪০, ঢ়েড়স ৩০ টাকা কেজি। তবে বেগুন, টমেটো, শসা, গাজরের দাম বেড়েই চলছে। কাঁচামরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে ৪০ টাকার বেশি।

দাম কমার আভাস নেই মাছের বাজারে। কেজিতে অন্তত বেড়েছে ৫০ টাকা। চাষের রুই-কাতলা বিক্রি হচ্ছে আড়াইশো থেকে সাড়ে তিনশো টাকা কেজি দরে। মানভেদে চিংড়ি, শিং, মাগুর বিক্রি হচ্ছে ছয়শো থেকে আটশো টাকা কেজিতে। ইলিশের দরও ঊর্ধ্বমুখী।

এদিকে, পোল্ট্রি বাজারে কিছুটা স্বস্তি ফিরছে। কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকায়। লেয়ার ২৮০ ও সোনালী জাত বিক্রি হচ্ছে ২৬০ টাকায়। আর দেশি জাতের জন্য কেজিতে গুনতে হবে ৫০০ টাকা। ডিমের হালি ৪০ টাকায় স্থির হয়ে আছে। প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের জন্য গুনতে হচ্ছে ২০৫ টাকা। ১৪০ টাকায় মিলছে, এক কেজি মসুর ডাল।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply