স্ত্রীকে নিতে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে খুন, বিল থেকে লাশ উদ্ধার

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর

নাটোরের বড়াইগ্রামের বিলের মধ্যে থেকে জামাই আলীফ হোসেনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার ভরতপুর তালশো বিল থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। সে বড়াইগ্রামে তার শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে গিয়েছিল। নিহত আলীফ হোসেন বড়াইগ্রামের আট গ্রাম এলাকার ফয়েজ আলীর ছেলে। ঘটনার পর থেকে নিহতের শ্বশুর জহুরুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।

বড়াইগ্রাই থানার উপ-পরিদর্শক লিটন কুমার সাহা ও এলাকাবাসী জানায়, বড়াইগ্রাম উপজেলার আটগ্রাম এলাকার ফয়েজ আলীর ছেলে আলীফ হোসেনের সাথে ভরতপুর এলাকার জহুরুল ইসলামের মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। এরই এক পর্যায়ে গত কয়েকদিন পূর্বে আলীফ হোসেনের স্ত্রী রাগারাগি করে তার বাবার বাড়ি চলে যায়। গতকাল সোমবার আলীফ হোসেন তার স্ত্রীকে নিতে তার শ্বশুর বাড়িতে যায়। সকালে শ্বশুরবাড়ির অদুরে বিলের মধ্যে একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী।খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে। পরে মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

প্রাথমিক সুরতহাল প্রতিবেদনে নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ময়না তদন্তের পর হত্যার সঠিক কারণ জানা যাবে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে অন্য কোন স্থানে তাকে হত্যার পর বিলের মধ্যে ফেলে রেখে গেছে হত্যাকারীরা।

এদিকে জামাই আলীফ হোসেনের মৃতদেহ উদ্ধারের পর থেকে শ্বশুর জহুরুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।









Leave a reply