ভালো থাকুক বিশ্বের সব বাবা

|

ছবি: সংগৃহীত।

বাবাকে ভালোবাসতে আলাদা দিন লাগে না। তবু একটা দিন নির্দিষ্ট করে দিলে মন্দ কি! আজই সেই দিন। বিশ্বের সব বাবাকে স্মরণ করা ও বাবাদের সাথে একটু বেশি সময় উদযাপন করার দিন এটি। আজ বিশ্ব বাবা দিবস।

বাবা মানেই বিশাল বটবৃক্ষ, যিনি সহ্য করে যাবেন সকল দুঃখ-কষ্ট। সন্তানকে সকল কিছু থেকে আড়াল করে যাবেন। তবু অদৃশ্য কোনো দেয়ালে ঢাকা পড়ে তাদের ভালোবাসার গভীরতা। প্রতিবছর জুনের তৃতীয় রোববার বিশ্বব্যাপী বাবা দিবস উদযাপিত হয়। পশ্চিমা বিশ্বে এ ধারণা প্রচলিত হলেও আমাদের দেশেও দিনটি পালন করা হয়।

বাবা দিবস পালনের প্রথম উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল ১৯০৮ সালে। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার ফেয়ারমন্টে প্রথম ৫ জুলাই দিবসটি পালন করা হয়। এরপর ১৯৬৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট লিন্ডন বি জনসন জুনের তৃতীয় রোববারকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাবা দিবস হিসাবে নির্ধারণ করেন। ১৯৭২ সালে প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সন প্রতিবছর জাতীয়ভাবে বাবা দিবস পালনের রীতি চালু করেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে উদযাপিত হয় বাবা দিবস। এ দিন বাবার সাথে তোলা ছবি নিজের ওয়ালে শেয়ার দেন সন্তানেরা। শুভেচ্ছা ও নানা স্মৃতিচারণ চলে সেখানেও। কেউ বা বাবা দিবসে বাবাকে বিশেষ কোনো উপহারও দিয়ে থাকেন। এদিন বাবাদের সাথে একটু বেশি সময় কাটান অনেক সন্তান।

তবে করোনার ধাক্কা এখনও সামলে উঠতে পারেননি অনেক বাবা। অনেকে চাকরি হারিয়েছেন। শহর ছেড়ে গ্রামে চলে গেছেন অনেকে। তবু সন্তানের ভালো থাকার কথা চিন্তা করে খেটে যাচ্ছেন দিনরাত। সন্তানের সব বিপদ-আপদে ছায়া মতো থেকে রক্ষা করে যাচ্ছেন। তাই এই বাবা দিবসে সকল বাবাকেই শুভেচ্ছা।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply