যে শহরে আপনি থাকতে চাইবেন

|

মোটা ব্যাংক ব্যালেন্স, নিরাপদ চাকরি, সারি সারি বৃক্ষরাজির মাঝে ফুলের ঘ্রাণ নিতে নিতে বাড়ি ফেরা এই যদি হয় আপনার কাছে ‘মনের শান্তি’র সংজ্ঞা তবে আপনার জন্য সেরা জায়গা জার্মানির স্টুটগার্ট শহর। ঠিক এই কারণেই হয়তো আপনি ইরাকের বাগদাদ, আফগানিস্তানের কাবুল ও নাইজেরিয়ার লাগোসে থাকতে চাইবেন না।

জীবন যাপনের জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ধকলপূর্ণ এবং কম ধকলপূর্ণ শহরের একটি তালিকা উঠে এসেছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক ড্রাই-ক্লিনিং এবং লন্ড্রি সার্ভিস জিপজেটের জরিপে। এতে অধিক ধকলের শহরের তালিকায় ৭ম  স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা।

জরিপে, বিবেচনায় আনা হয়েছে জনসংখ্যা, যোগাযোগ ব্যবস্থা, দূষণের মাত্রা, সবুজ এলাকার পরিমাণ, নাগরিকদের অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা, ঋণের পরিমাণ, শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের অব্স্থা। এমনকি, প্রতি বছর শহরটি কত ঘণ্টা সূর্যের আলো পায় বিবেচনায় ধরা হয়েছে সেটিও।

১৭টি ক্যাটাগরিতে ৫০০টি স্থানের ওপর জরিপ পরিচালনা শেষে ১৫০টি শহরের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। জরিপের প্রাপ্ত ফল অনুসারে, বসবাসের উপযোগী শীর্ষ দশটি শহরের চারটিই জার্মানির। এর মধ্যে প্রথম স্থান দখল করে আছে দেশটির দক্ষিণের শহর স্টুটগার্ট। শক্তিশালী স্থানীয় অর্থনীতি, শহর ঘেষা পাহাড়ের সারি, উপত্যকা, সবুজ এলাকা এবং বিস্তৃত আঙ্গুরক্ষেত এই শহরকে আরও মনোরম করে তুলেছে। অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা, ব্যক্তিগত নিরাপত্তার ক্ষেত্রেও এগিয়ে আছে স্টুটগার্ট।

বসবাসের জন্য সবচেয়ে কম ধকলের শহর স্টুটগার্ট

 

জার্মানির আরেক শহর হ্যানোভার তালিকায় ৩য় স্থান পেয়েছে । এছাড়াও মিউনিখ ৫ম স্থানে, আর যৌথভাবে অস্ট্রিয়ার গ্রাজের সাথে ৯ম স্থানে আছে হামবুর্গ।

বিশ্বের অন্যতম ধনী রাষ্ট্র লুক্সেমবার্গ ৬ লাখের কম জন্যসংখ্যা নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে। চতুর্থ স্থানে আছে সুইজারল্যান্ডের বার্ন।

তালিকার শীর্ষে আছে সুইজারল্যান্ডের বার্ন

 

ফ্রান্সের শহর বোর্দে ৭ম স্থান ভাগাভাগি করে নিয়েছে যুক্তরাজ্যের এডিনবার্গের সাথে। তালিকায় শীর্ষ ১০-এ থাকা ইউরোপের বাইরের একমাত্র শহর অস্ট্রেলিয়ার সিডনি। এর অবস্থান ৮ -এ।

যুক্তরাষ্ট্রে গেলে আপনি নিশ্চয় সিয়াটল শহরে থাকতে চাইবেন। কারণ, দেশটির সবচেয়ে কম ধকলের শহর নির্বাচিত হয়েছে এই সিয়াটলই। বায়ু দূষণ, শব্দ দূষণের মাত্রার দিক থেকে ভালো পয়েন্ট পেয়েছে উত্তর আমেরিকার শহরগুলো। এদের মধ্যে এগিয়ে আছে সিয়াটল, মায়ামি, ভ্যানকুভার এবং বোস্টন।

জরিপে দেখা যাচ্ছে আইভরি কোস্টের রাজধানী আবিদজানে শব্দ দূষণ সবচেয়ে কম। অন্যদিকে, আইসল্যান্ডের রাজধানী রিকজাভিক ও মাদাগাস্কারের রাজধানী আন্তানানারিভোতে আলো দূষণ সবচেয়ে কম।

মাদাগাস্কারের রাজধানী আন্তানানারিভোতে আলো দূষণ সবচেয়ে কম

 

সস্তায় মেলে না মনের শান্তি, এই তালিকা দেখে অনন্ত তাই মনে হচ্ছে। ভালো পয়েন্ট পাওয়া সিডনি, ভ্যানকুভার, মেলবোর্ন পৃথিবীর অন্যতম খরুচে শহর।

বসবাসের জন্য কম ধকলের শহর:

১. স্টুটগার্ট, জার্মানি
২. লুক্সেমবার্গ, জার্মানি
৩. হ্যানোভার, জার্মানি
৪. বার্ন, সুইজারর‌্যান্ড
৫. মিউনিখ, জার্মানি
৬. বোর্দেয়াক্স, ফ্রান্স
৭. এডিনবার্গ, যুক্তরাজ্য
৮. সিডনি, অস্ট্রেলিয়া
৯. গ্রাজ, অস্ট্রিয়া ও হামবুর্গ, জার্মানি

অধিক ধকলের শহর:

১. বাগদাদ, ইরাক
২. কাবুল, আফগানিস্তান
৩. লাগোস, নাইজেরিয়া
৪. ডাকার, সেনেগাল
৫. কায়রো, মিশর
৬. তেহরান, ইরান
৭. ঢাকা, বাংলাদেশ
৮. করাচি, পাকিস্তান
৯. নয়াদিল্লি, ভারত
১০. ম্যানিলা, ফিলিপাইন

(সূত্র: সিএনএন)
যমুনা অনলাইন: টিএফ




Leave a reply